লিটন-সৌম্য নয় তামিমের সঙ্গে ওপেনিংয়ে সেরা নাইমঃ ইমরুল

শেষ ৭ ইনিংসে (১৪, ২২, ০, ১৯, ০, ২১, ০) লিটনের মোট রান ৭৬। যার মধ্যে তিনবার আউট হয়েছেন শূন্যতে। এমন খারাপ ফর্মের পর খুব স্বাভাবিকভাবেই লিটন দাসকে নিয়ে নিয়ে কথাবার্তা, সমালোচনা। তাকে খেলানোর যৌক্তিকতা নিয়ে নানা প্রশ্ন চারিদিকে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন তো ম্যাচ চালকালীন বলেই ফেলেছেন, লিটন দাস ওপেনিং ম্যাটেরিয়ালই নয়। সে আসলে মিডল অর্ডার এবং তাকে টেস্টের মত ওয়ানডেতেও পাঁচ-ছয় নম্বরে খেলানো উচিত।

এখন প্রশ্ন উঠেছে- এ সিরিজে লিটন কি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাকি দুই ম্যাচে ওপেন করবেন? তার বর্তমান ফর্ম বিচারে সেটা কি ঠিক বা যুক্তিযুক্ত হবে? নাকি আরেক ওপেনার সৌম্য সরকারকে আবারও তামিমের সঙ্গী বানানো হবে? তামিমের অনেকদিনের সঙ্গী, দল থেকে বাদ পড়া ইমরুল কায়েসের চিন্তা অন্যরকম। তিনি এ মুহূর্তে তামিমের সঙ্গে ওপেনিংয়ে সেরা পছন্দ মনে করছেন তরুণ এক ব্যাটসম্যানকে, যার নাম নাইম শেখ।

এক সাক্ষাৎকারে ইমরুল কায়েস বলেন, ‘আমার মনে হয় এ মুহূর্তে নাইম শেখকে ট্রাই করা উচিত। লিটন দাস ভাল ব্যাটসম্যান। তার মেধা নিয়ে আমার কোনো সংশয় নেই। তবে এখন সে ফর্মে নেই। তার আত্মবিশ্বাস তলানিতে। বোঝাই যাচ্ছে, সে নিজে নিজে অনেক চাপ নিয়ে ফেলেছে। যে কারণে ভালো খেলতে পারছে না। রান করাও সম্ভব হচ্ছে না।’

ইমরুলের অনুভব, এখন লিটনকে খেলিয়ে কোনো ইতিবাচক ফল আসবে না। আর সৌম্য সরকারকেও খেলানোর পক্ষে নন জাতীয় দলের অন্যতম সফল এই ওপেনার। এ সময় সৌম্য সম্পর্কে ইমরুলের কথা, ‘সেও তো খুব ভালো ফর্মে নেই। আর সৌম্য তো মাঝে বেশ সুযোগও পেয়েছে। কিন্তু ভালো খেলে নিজের অপরিহার্যতার প্রমাণ দিতে পারেনি। কাজেই আমার মনে হয় এ মুহূর্তে তরুণ নাইম শেখই হতে পারে বেস্ট পজিবল অপশন, যাকে তামিমের সাথে ওপেনিংয়ে ট্রাই করা যেতে পারে।’

এ সময় ইমরুল যোগ করেন, ‘লিটনের ভালো রূপটাও আমরা দেখেছি। খারাপটাও দেখা হলো। এখন বিকল্প পথ খোঁজাই যুক্তিযুক্ত। এখন সৌম্যও যেহেতু ভালো খেলছে না। তাই নাইমই আমার প্রথম পছন্দ। আমার মনে হয় নাইম শেখকে সুযোগ দিয়ে দেখা যেতে পারে।’

অভিজ্ঞ ইমরুলকে এবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রাথমিক ক্যাম্পে ডাকা হয়েছিল। শোনা যাচ্ছিল, ওয়ানডে একাদশে ফেরানো হতে পারে। কিন্তু ৭৪ ওয়ানডে খেলা এই ওপেনারকে মূল দলেই রাখেননি নির্বাচকরা। যা নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে ইমরুলের মতামত , ‘আমি নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্ট নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। আমাকে নেয়া হয়নি, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রাথমিক দলে ডাক পেলেও মূল দলে জায়গা পাইনি, এমনকি স্ট্যান্ডবাইয়ের তালিকায়ও নাম নেই। বাট নো কমেন্টস।’