ভারতের উপকূলে ইয়াস আঘাত হানবে ১৬৫ কিলোমিটার বেগে

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস ‘আরও শক্তিশালী হয়ে’ অন্ধ্র প্রদেশ, ওডিশা ও পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানতে পারে। আগামীকাল বুধবার দুপুরে এটি আঘাত হানতে পরে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দেশটির আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে, ইয়াস যখন আঘাত হানবে, তখন বাতাসের গতিবেগ থাকতে পারে ঘণ্টায় ১৫৫ থেকে ১৬৫ কিলোমিটার। এ সময় ঘণ্টায় ১৮৫ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়া বয়ে যেতে পারে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া ও নিউজ এইটটিনের।

ভারতের গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, আজ মঙ্গলবার সকালে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস ওডিশার বালাসোর থেকে ৪৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ-পূর্বে, পারাদ্বীপ থেকে ৩২০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ-পূর্বে ও পশ্চিমবঙ্গের দিঘা থেকে ৪৫০ কিলোমিটার দূরে বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছিল। এ প্রসঙ্গে কলকাতার আঞ্চলিক আবহাওয়া দপ্তরের উপপরিচালক সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ঘূর্ণিঝড় ইয়াস ওডিশার পারাদ্বীপ এবং পশ্চিমবঙ্গের সাগরদ্বীপ এলাকার মধ্যবর্তী যেকোনো এলাকায় আঘাত হানতে পারে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় পশ্চিমবঙ্গ ও ওডিশায় ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এই দুই রাজ্যেই সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গ ও ওডিশায় ন্যাশনাল ডিজাস্টার ফোর্স (এনডিআরএফ) এবং কোস্টগার্ড মোতায়েন করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে এনডিআরএফের ৩৫টি টিম মোতায়েনের পর আজ আরও ১০টি টিম মোতায়েন করা হয়। ওডিশায় এনডিআরএফের ২৮টি টিম মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়া অন্ধ্র প্রদেশ, তামিলনাড়ু, আন্দামান ও নিকোবরেও এনডিআরএফের টিম মোতায়েন করা হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ঘূর্ণিঝড়ে প্রাণহানি ঠেকাতে রাজ্যের উপকূলীয় এলাকা থেকে ১০ লাখ মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়ার কাজ চলছে। ওডিশার স্পেশাল রিলিফ কমিশনার পি কে জেনা বলেন, উপকূলীয় এলাকার বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। আজ বিকেলে এ কাজ শেষ হওয়ার কথা।

ইয়াসের প্রভাব মোকাবিলায় গৃহীত পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ওডিশা, পশ্চিমবঙ্গ ও অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন। এ ছাড়া আন্দামান ও নিকোবরের প্রশাসকের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন অমিত শাহ।

কেন্দ্রীয় আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে, ইয়াসের প্রভাবে আজ থেকেই পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী জেলা পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, কলকাতা, হাওড়া ও হুগলিতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এ ছাড়া ওডিশায় ইতিমধ্যে বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের গতিবেগ হতে পারে ১২০ থেকে ১৩০ কিলোমিটার। আগামীকাল রাত সাড়ে ১১টার দিকে গতিবেগ হতে পারে ১৪৫ থেকে ১৫৫ কিলোমিটার। কাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের গতিবেগ হতে পারে ১৫৫ থেকে ১৬৫ কিলোমিটার। রাত সাড়ে ১১টার দিকে গতিবেগ হতে পারে ১০০ থেকে ১১০ কিলোমিটার। আগামী বৃহস্পতিবার এটি দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে।