বাঘায় চুরি যাওয়া ১২ মহিষ উদ্ধার

রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় চুরি যাওয়া ১২টি মহিষ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রাখাল জাহাঙ্গীর হোসেনকে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে পুঠিয়া উপজেলার বারইপাড়া গ্রামের এক আমবাগান থেকে মহিষগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। বাঘা থানার পুলিশ পুঠিয়া থানার সহযোগিতায় ওই মহিষগুলো উদ্ধার করে। ওই মহিষগুলো ১৭ লাখ টাকা মূল্যের বলে জানা গেছে।

জানা যায়, সোমবার রাতে বাঘা উপজেলার পদ্মার মধ্যে পলাশী ফতেপুর চরের আশরাফ ঘোষের মহিষের খামার থেকে ১২টি মহিষ চুরি করে নিয়ে যায় রাখাল জাহাঙ্গীর হোসেন। এ খবরটি জানতে পেরে ওই রাতে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রাজশাহী পুলিশ সুপারকে অবগত করা হয়।

তার পর পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় বাঘা থানা পুলিশ অভিযান শুরু করে। একপর্যায়ে পুঠিয়া উপজেলার বারইপাড়া গ্রামের একটি আমবাগানে মহিষগুলোকে রাখা হয়েছে, এমন খবরের ভিত্তিতে পুঠিয়া থানার সহযোগিতায় ১২টি মহিষ উদ্ধার করা হয়। এ সময় খামারের আগের রাখাল জাহাঙ্গীর হোসেনকেও আটক করা হয়েছে।

মহিষের মালিক বাঘা উপজেলার পদ্মার মধ্যে পলাশী ফতেপুরচরের আশরাফ ঘোষ বলেন, আমি কয়েক মাস আগে ১২টি মহিষ ক্রয় করে পদ্মারচরে খামার দিয়েছি। সেই খামারে জাহাঙ্গীর হোসেন নামে এক ব্যক্তিকে বিশ্বাস করে রাখালের দায়িত্ব দেওয়া হয়। সে আমার কথা না শোনায় তাকে বাদ দেওয়া হয়। সেই ব্যক্তি আমার সঙ্গে প্রতারণা করে মহিষগুলো চুরি করে নিয়ে যায়।

তবে এর সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের আটক করে আইনের আওতায় আনার জন্য দাবি জানান তিনি। এ বিষয়ে বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, চুরি যাওয়া ১২টি মহিষসহ রাখাল জাহাঙ্গীর হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এর সঙ্গে জড়িতদের আটক অভিযান অব্যাহত রয়েছে।