মসজিদ কমিটির সভাপতি হলেন জায়েদ খান

চিত্রনায়ক জায়েদ খান মসজিদ কমিটির সভাপতি হয়েছেন। পিরোজপুরের মাছিমপুরের আল হেরা জামে মসজিদের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন এই অভিনেতা। বুধবার বিকেলে কালের কণ্ঠকে জায়েদ খান নিজেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। অভিনয় জগতের একজন সদস্যের এমন একটি দায়িত্বপ্রাপ্তি বেশ গর্বের বলেও মনে করেন জায়েদ খান।

কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমি এবার বাড়ি গিয়ে সারপ্রাইজড হয়েছি। আল হেরা জামে মসজিদ থেকে আমাকে সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়। আমি গিয়ে বিস্মিত হই। আমাকে মসজিদ কমিটির সভাপতি করা হয়েছে জানিয়ে আমার হাতে উপহারস্বরূপ জায়নামাজ-টুপি তুলে দেওয়া হয়’।

আল হেরা জামে মসজিদে চিত্রনায়কের বাবা এম এ হক প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই যুক্ত ছিলেন। করেছেন নানা উন্নয়ন সাধন। এম এ হক সভাপতি ছিলেন মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত, তারপরেই ছেলে জায়েদ খানকে মসজিদ কমিটির সভাপতির দায়িত্ব তুলে দেওয়া হলো।

সভাপতি কেন করা হলো এমন প্রশ্নের জবাবে জায়েদ খান বলেন, ‘আসলে আমার কাছেও এটাই প্রশ্ন ছিল। সাধারণত মসজিদ কমিটির সভাপতি বা সেক্রেটারি হন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কিংবা গণ্যমান্য ব্যক্তি। কিন্তু আমাকে সভাপতি করা হয়েছে কেন এটা জানতে গিয়ে তারা জানান, আমার কোনো বাজে অভ্যাস নেই, মদ সিগারেট খাই না। যার কারণে আমাকে এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে’। জায়েদ খান জানান, ‘বাবার অপূর্ণ রেখে যাওয়া কাজগুলো তিনি চিহ্নিত করেছেন। সেসব তিনি পূর্ণ করবেন। প্রাথমিকভাবে এই মসজিদে একটি এয়ারকুলার কিনে দেবেন’।

চলচ্চিত্র অভিনেতার পাশপাশি জায়েদ খান বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক। তবুও পিরোজপুরের একটি মসজিদ কমিটির সভাপতি হয়ে উচ্ছ্বাস করেছেন। বলেন, আমি অভিনয় করিও, অনেকের ধারণা যার অভিনয় করে, সিনেমার মানুষ তারা খারাপ। আমাকে এই পদে নেওয়া হয়েছে এখন অনেকের ভুল ভাঙবে। আল্লাহ আমাকে কবুল করেছেন বলেই এমন একটি মর্যাদাকর স্থান পেয়েছি।

চিত্রনায়ক জায়েদ খান বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে যুক্ত হয়েছেন। তার হাতে ছবির সংখ্যা ১০টি বলে কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন।