আল্লাহর রহমত নাকি ডাক্তারের ভুল? মৃত ঘোষণার ২ঘন্টা পর বেঁচে উঠলো শিশুটি

জন্মের পর ডাক্তার তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেছিল। গতকাল সকাল ৫ টায় ঢাকা মেডিকেলে এক কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। জন্মের পরও শিশুটি কোন প্রকার নড়াচড়া বা শব্দ করে না। ফলে শিশুটিকে ডেড সার্টিফিকেট সহ মৃত ঘোষণা করে দায়িত্বপ্রাপ্ত ডাক্তার। এরপর একটি প্যাকেটে মুড়িয়ে শিশুর লা’শ বাবার কাছে দেয়। বাবা লা’শ নিয়েকবরস্থানে দাফন করতে নিয়ে যায়।

এমন সময় লাশের প্যাকেট নড়ে উঠে এবং শিশুটি কান্না শুরু করে। বাবা প্রথমে ভয় পেয়ে যায়, কিন্তু প্যাকেট খুলে দেখে তার ফুটফুটে শিশুটি সুস্থ আছে।তিনি দৌড়ে আবারো ঢাকা মেডিকেলে ছুটে যান। মজার বিষয় হল: ডাক্তারদের আগের গল্প বলার সাথে সাথে তারা বাবার কাছ থেকে ডেড সার্টিফিকেট দেখতে চেয়ে সেটি নিয়ে যায়, আর ফেরত দেয় নি এটা ভুল ও নয়,আলৌকিক ও নয়। চরম দায়িত্বহীনতা।এটা শুধু প্রথমবার নয় এর আগেও এ ধরনের নিউজ দেখেছি।

প্রাইভেট চেম্বার এর চিন্তায় রোগীর নাড়িতে হাত দেওয়ার সময় পায় না। সব ফাকিবাজ,দুর্নীতিবাজ, চিটার বাটপার এ ভরে গেছে দেশ। যে ভাষা দিতে মন চায় তা এখানে প্রকাশ করা যায় না। এদের দোষ আর কি দিব। এরা তো মানুষ না।মানুষ হলে সোনার ডিম,সোনার কলা খায়? চিকিৎসা তো দুরে থাক রোগী বেচে আছে এটাও যদি বলতে না পারে!! এভাবেই জীবন্ত ক’বর দেওয়া হতে রক্ষা পেল নবজাতক এই শিশুটি( আল্লাহু আকবর) মহান আল্লাহপাক এই শিশুটির নেক হায়াত দান করুক