সাতক্ষীরায় ৭ দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা

ঈদের পর থেকে সাতক্ষীরায় আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে করোনা সংক্রমণের হার। জেলায় গত এক সপ্তাহে নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ রোগীর গড় হার ৩৯ শতাংশ। করোনা সংক্রমণ বিস্তার রোধে জেলায় এবার এই জেলায় সাতদিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

আগামী ৫ জুন থেকে লকডাউন শুরু হবে। বৃহস্পতিবার (৩ জুন) জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল লকডাউন ঘোষণা করেন। বৃহস্পতিবার (৩ জুন) দুপুর ১২টায় জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
শনিবার (৫ জুন) থেকে জেলাব্যাপী সাত দিনের লকডাউন কার্যকর করা হবে।

জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় উপস্থিত ছিলেন- সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. মো. হুসাইন সাফায়াত, পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান, সাতক্ষীরা ৩৩ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ আল মাহমুদসহ সংশ্লিষ্টরা। রোগীর বাড়তি চাপ ও হাসপাতালে করোনা বেড না থাকায় সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নতুন করে রোগী ভর্তি করা হচ্ছে না জানা গেছে। তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

সাতক্ষীরা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানিয়েছে, ঈদের আগে জেলায় করোনা সংক্রমণের হার ছিল শতকরা ১৩ ভাগ। ঈদের পর ১৬ মে থেকে তা বাড়তে থাকে। গত এক সপ্তাহ ধরে এ হার ৪০-৪১ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। সর্বশেষ শনি থেকে রোববার পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ৯০ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৭ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে এবং রোববার থেকে সোমবার পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ১০৫ জনের মধ্যে ৩৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. কুদরত-ই-খোদা বলেন, ‘করোনা রোগীর ৮৭ শয্যা বাড়িয়ে ১৫০ শয্যা করা হয়েছে। ১৫০ শয্যা প্রস্তুত করা হচ্ছে। রোগী সামলাতে চিকিৎসক ও নার্সরা হিমশিম খাচ্ছেন।