একসঙ্গে থাকার জন্য কোটিবার মাথা ঠুকেছিলাম: মাহিয়া মাহি

বিয়ের ৫ বছরের মধ্যেই মাহমুদ পারভেজ অপুর সঙ্গে নায়িকা মাহিয়া মাহির সুখের সংসার ভেঙে তছনছ। ২৩ মে ডিভোর্সের ঘোষণা দেন মাহি। বিচ্ছেদের পরও অপুর সঙ্গে থাকতে চেয়েছিলেন ঢালিউডের এই নায়িকা। সেই কথা নিজেই ফেসবুকে এক পোস্টের মাধ্যমে জানালেন মাহি। তিনি জানান, অপুর সঙ্গে সম্পর্কটা ধরে রাখার জন্য কোটিবার মাথা ঠুকেছিলাম।

মঙ্গলবার রাতে মাহি তার ফেসবুকে পোস্টে লিখেছেন, ‘মুখে মুখে না হয় ১২ লক্ষবার ছেড়ে যাব বলেছিলাম কিন্তু যেই খোদাকে তুমি বিশ্বাস করো তার কাছে সিজদায় শেষদিন পর্যন্ত একসঙ্গে থাকার জন্য কত কোটিবার মাথা ঠুকেছিলাম সেটা বুঝতে কেন পারলে না।’ স্ট্যাটাসের সঙ্গে একটি ছবিও পোস্ট করেন মাহি। যেখানে দেখা যাচ্ছে লাল রঙের শাড়ি পরে আছেন নায়িকা।

বিয়ের কয়েক বছর পার হতেই স্বামীর সঙ্গে মাহির সম্পর্কের টানাপোড়েনের গুঞ্জন প্রকাশ পায়। তারকার ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে বিবাহবিচ্ছেদের গুঞ্জনও শুরু হয়েছিল। যদিও তিনি বরাবরই অস্বীকার করেছেন বিষয়টি। শেষ পর্যন্ত ২৩ মে এক ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে নিজেই জানিয়ে দিলেন স্বামীর সঙ্গে আর থাকছেন না ঢালিউডের এই জনপ্রিয় নায়িকা।

ঢালিউডের আলোচিত এ নায়িকা ও সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপু বিয়ে করেন ২০১৬ সালে। দীর্ঘ পাঁচ বছর পর তাদের দাম্পত্য জীবনে ছন্দপতন ঘটে, যা প্রকাশ্যে আসে চলতি বছর ২৩ মে। এদিন মাহি এক ফেসবুক পোস্টে সংসার ভাঙার ইঙ্গিত দেন।

পরে মাহি সংবাদমাধ্যমকে জানান, প্রায় বছর দুই আগেই তাদের বিচ্ছেদ হয়েছে। কিন্তু তার স্বামী অপু গত ২৬ মে জানান, দুই বছর নয়, মাত্র দুদিন আগে তাদের বিচ্ছেদ হয়।