অবৈধ স্থাপনার ছবি তোলার সময় সাংবাদিকের ওপর হামলা

পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ প্রতিনিধি শাকিল আহম্মেদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার বিকালে শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কের ভেদরগঞ্জ উপজেলার ডিএমখালী ইউনিয়নের গাজীকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এক বছর আগে শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কটির চার লেনে উন্নীতকরণ কাজ শুরু হয়। শরীয়তপুর-২ আসনের এমপি ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম কাজের উদ্ধোধন করেন।

পরবর্তীতে ওই মহাসড়ক প্রশস্ত করার লক্ষ্যে জমি অধিগ্রহণের কাজ শুরু হয়। বিষয়টি জানার পর মহাসড়কের দুইপাশে অস্থায়ী অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ শুরু করে একটি প্রভাবশালী চক্র। খবর পেয়ে সংবাদ সংগ্রহের জন্য বৃহস্পতিবার সেখানে আসেন সাংবাদিক শাকিল।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সজিব মাহামুদ বলেন, চার লেন রাস্তা করার জন্য সরকার জমি অধিগ্রহণ শুরু করেছে। কিছু অসাধু ও দালাল চক্র সরকারি টাকা আত্মসাতের জন্য অস্থায়ী স্থাপনা নির্মাণ করছেন। সেই সংবাদ সংগ্রহের জন্য শাকিল ঘটনাস্থলে আসলে স্থানীয় দালাল আহমদ আলী ও মাইন উদ্দিন তার ওপর লাঠি ও শাবল নিয়ে হামলা করেন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করেন।

এ বিষয়ে সাংবাদিক শাকিল আহম্মেদ বলেন, অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের খবর পেয়ে আমি চাঁদপুর-শরীয়তপুর মহাসড়কে পাশের স্থাপনা দেখার জন্য যাই। ঘটনার সত্যতা মেলে। ছবি তোলার জন্য মোবাইল বের করলে স্থানীয় দালাল আহমদ আলীর নেতৃত্বে মহিউদ্দিন ও পারভেজ আমার ওপর লাঠি ও শাবল দিয়ে হামলা চালায়। এ সময় স্থানীয়দের সহায়তায় আমি রক্ষা পাই। পরে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে থানায় অভিযোগ করি।

এ ব্যাপারে আহমদ আলীকে বার বার কল করা হলেও তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

সখিপুর থানার ওসি আসাদুজ্জামান হাওলাদার বলেন, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে