দেশে ফিরেই ইউরোপীয় ফুটবলারদের মত বেতন কাঠামোর আওতায় আসবে জামালরা

অবশেষে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের বেতনের আওতায় আনছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। তিনটি গ্রেডের মাধ্যমে খেলোয়াড়দের এই অর্থ প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন। আজ বৃহস্পতিবার (১০ জুন) মতিঝিলে বাফুফে কার্যালয়ে আশরাফুল ইসলাম রানা, সাদ উদ্দিন, বিশ্বনাথ ঘোষ, মাহবুবুর আলম সুফিল ও টুটুল হোসেন বাদশাহর সঙ্গে বৈঠক করেছেন সালাউদ্দিন।

বাইরের দেশে সাধারণত জাতীয় দলের ফুটবলাররা বেতনের আওতায় থাকেন না। বাংলাদেশে এটির প্রচলণের কারণ হিসেবে ব্যাখ্যা হিসেবে সালাউদ্দিন বলেন, ‘ বেতন কাঠামোর মধ্যে থাকলে সবাই জাতীয় দলে খেলার প্রতি আকৃষ্ট হবে, প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়বে। ইউরোপে ফুটবলাররা ক্লাবে অনেক অর্থ পায়।

সেই অর্থ দিয়ে প্রয়োজনে ১০০ বছর বেঁচে থাকতে পারে। ফলে জাতীয় দলে খেলে সেই অর্থে সম্মানীর প্রয়োজন হয় না। আমাদের তো সেটা নেই। এখানে যদি ওরা সপ্তাহে দুই কোটি টাকা পেতো, তাহলে বেতন কাঠামোর প্রয়োজন পড়তো না।’ এ সময় সালাউদ্দিন আরও বলেন, প্রাথমিক পরিকল্পনায় ৩০ জন ফুটবলারকে এই বেতন কাঠামোর আওতায় আনা হবে।

প্রথম ১৫ জন ‘এ’ ক্যাটাগরির, পরের দশজন থাকবেন ‘বি’ ক্যাটাগরিতে ও শেষ পাঁচজন ‘সি’ ক্যাটাগরিতে থাকবেন। পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে ক্যাটাগরি পরিবর্তন হবে। আমরা বেতন কাঠামো নিয়ে এক রকম পরিকল্পনা করছি। কাতার থেকে ফেরার পর সবার সাথে বসবো।

বাফুফে ভবনে সভাপতির সঙ্গে সভা শেষে সিনিয়র ফুটবলার আশরাফুল ইসলাম রানা এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, ‘আমাদের বেতন কাঠামোর আওতায় আনার পরিকল্পনাটা খুবই ভালো। এতে আমরা আরও উৎসাহিত হবো। এমন কথা আমরা আগে থেকেই বলে আসছিলাম। এখন এটার বাস্তবায়ন হলে সবার জন্য ভালো হবে।’