প্রতারনায় বোনকেও ছাড় দেয়নি ওসি প্রদিপ

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হ”ত্যা মা’মলার আসা’মি টেকনাফ থা’নার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ দাশের
বি’রু’দ্ধে এবার বোনের কোটি টাকার সম্পত্তি আ’ত্মসা’তের অ’ভি’যোগ পাওয়া গেছে।

এরমধ্যে দুদক চট্টগ্রাম জে’লা কার্যালয়ে সম্পত্তি আ’ত্মসা’তের অ’ভি’যোগে করেছেন প্রদীপের সৎবোন র’ত্নাবালা।গতকাল শুক্রবার দুদক কর্মক’র্তারা জানান, অ’ভি’যোগ অনুস’ন্ধানের অনুমতি চেয়ে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে আবেদন করা হয়েছে।

জানা গেছে, প্রদীপ দাশের সৎবোন রত্নাবালা চট্টগ্রামের মুরাদপুর এলাকায় তার ১২ শতক জমি ও একটি চারতলা ভবন

দখল করে নেয়ার অ’ভি’যোগ জানান দুদক জে’লা কার্যালয়ে। এসব সম্পত্তি প্রদীপ দাশ এক কোটি ৩০ লাখ টাকায় তার স্ত্রী’ চুমকি কারনের নামে বায়না করেছেন বলে অ’ভি’যোগ করা হয়।

তবে বা’য়না বাবদ রত্নাবালাকে প্রদীপ কোনো টাকা দেননি; বরং প্রতি’বাদ করায় রত্নবালার ছে’লে বিবেক রঞ্জন চৌধুরীর বি’রু’দ্ধে নারী নি’র্যাত’নের মা’মলা দিয়েছেন প্রদীপ দাশ। এতে রঞ্জন চৌধুরীকে জে’লখা’নায়ও থাকতে হয়েছে।

টেকনাফের নিলুফা নামের এক নারীকে মা’মলার বাদী সাজানো হয়েছে। রঞ্জনের মে’য়ে বেবী চৌধুরীকেও লা’ঞ্ছিত করা হয়েছে বলে রত্নাবালার অ’ভি’যোগ।

রত্নাবালা জানান, তার বাবা প্রে’ম লাল প্রজা’পতি ও মা যুগল রানী প্রজা’পতি। দুই মে’য়েকে রেখে রত্নাবালার বাবা মা’রা যান। এরপর রত্নাবালার মা হরেন্দ্র লাল দাশ নামে এক ব্যক্তিকে বিয়ে করেন। সেই ঘরে প্রদীপ দাশসহ রত্নাবালার তিন

ভাইয়ের জন্ম। রত্নাবালার আপন বোন অল্প বয়সে মা’রা যান। এরপর থেকে বাবার সম্পত্তি হিসেবে শহরের ১২ শতক জমি ও ভবনের মালিক রত্নাবালা।

এ ব্যাপারে দুদকের সহকারী পরিচালক রিয়াজ উদ্দীন জানান, প্রদীপ দাশের বি’রু’দ্ধে সম্প’ত্তি আ’ত্মসা’তের অ’ভি’যোগ প্রধান কার্যালয়ের অনুমতির জন্য পাঠানো হয়েছে। অনুমতির পর অনুস’ন্ধান শুরু করা হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*