আগামীকাল দুই বন্ধুর কঠিন পরীক্ষা

এবারের কোপা আমেরিকায় যাত্রাটা হয়েছিল ড্র দিয়ে। আগামীকাল তাই উরুগুয়ের বিপক্ষে জেতা জরুরি। এদিকে বার্সেলোনায় খেলেছেন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে। শুধু মাঠে নয়, মাঠের বাইরেও তারা পরম বন্ধু। ঘুরে বেড়ানো, সময় কাটানো কিংবা অনুশীলন ক্যাম্পে আসা- এসবই হতো তাদের একসঙ্গে। নেইমার প্যারিসে যাওয়ার পর এ জুটির রসায়নই উপভোগ করেছিল কাতালান সমর্থকরা।

তাই গত ট্রান্সফার উইন্ডোতে যখন চোখের জলে বিদায় নেন লুইস সুয়ারেজ, তখন নীরবে কেঁদেছে লিওনেল মেসির মন। কিছুতেই সুয়ারেজের চলে যাওয়া মানতে পারেননি নাম্বার টেন। এরপর অবশ্য অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে বার্সার খেলার সৌজন্যে দেখা হয়ে যায় দু’জনরা। এবার একটু ভিন্ন আঙিনায় ভিন্ন টুর্নামেন্টে দীর্ঘদিন পর দেখা হচ্ছে সুয়ারেজ-মেসির।

এবারও বন্ধুত্বের কথাটা ভুলে নামতে হবে একে অপরের বিরুদ্ধে। জিততে চাইবেন দু’জনই। আগামীকাল ভোর ৬টায় সেই ম্যাচ। যেখানে একদিকে থাকছে মেসির আর্জেন্টিনা, অন্যদিকে সুয়ারেজের উরুগুয়ে। ম্যাচটা দুই বন্ধুর জন্যই কঠিন। চিলির বিপক্ষে ড্র করে কোপা আমেরিকার মিশন শুরু করে আর্জেন্টিনা। তারা শনিবার যে করেই হোক জিততে চাইবে।

চিলির সঙ্গে ড্র করায় এই ম্যাচে আর্জেন্টিনা কোমর বেঁধেই নামবে। আর সেটা করতে গিয়ে একাদশেও আসছে কিছুটা পরিবর্তন। মাঝমাঠে আগের দিন বদলি হয়ে নামা ডি মারিয়া উরুগুয়ের বিপক্ষে শুরু থেকে থাকতে পারেন। এ ছাড়া রক্ষণভাগে নিকোলাস গঞ্জালেসের জায়গায় ফিরতে পারেন আতালান্তার সেন্টারব্যাক ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো।

আক্রমণভাগে আসতে পারে কিছুটা রদবদল। চিলির বিপক্ষে একাধিক সুযোগ নষ্ট করা লাওতারো মার্টিনেজকে বসিয়ে অভিজ্ঞ সার্জিও আগুয়েরোকে দিয়ে শুরু করতে পারেন কোচ লিওনেল স্কালোনি।