‘সব বীর মুক্তিযোদ্ধার কবর একই রকম করার প্রকল্প শুরু হচ্ছে’

সারা দেশে সব বীর মুক্তিযোদ্ধার কবর একই রকমভাবে করার প্রকল্পের কাজ আগামী মাস থেকে শুরু হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তিনি বলেছেন, সরকার বীর যুক্তিযোদ্ধাদের জন্য নানারকম প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এর মধ্যে আগামী মাস থেকেই প্রত্যেক মুক্তিযোদ্ধা ২০ হাজার টাকা করে ভাতা পাবেন।

গৃহহীন মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রতি উপজেলায় ২৮টি বাড়ি নির্মাণ করা হবে। মন্ত্রী এ উপজেলায় এই বরাদ্দ দ্বিগুণ করার ঘোষণা দেন। এছাড়া সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনে বিদেশে নেওয়ার কথা ভাবছে। শনিবার বিকালে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা মুক্তিযুদ্ধ কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধনের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ধর্ম ব্যবসায়ীরা নিজেদের স্বার্থে বিভিন্ন সময় ফতোয়া দিয়ে আসছে। ব্রিটিশ আমলে তারা ফতোয়া দিয়েছিল ইংরেজি শিক্ষা ঠিক নয়। ভাষা আন্দোলনের সময় তারা বাংলা ভাষার বিপক্ষে মত দেয়। সর্বোপরি মুক্তিযুদ্ধের সময় তারা এ দেশের নারীদের ওপর বর্বরোচিত নির্যাতনকে গণিমতের মাল হিসেবে আখ্যায়িত করে তা সমর্থন করেছিল।

তিনি বলেন, প্রকৃতপক্ষে রাষ্ট্র ও ধর্ম এক নয়। রাষ্ট্রের প্রয়োজনে সংবিধান সংশোধন করা সম্ভব। কিন্তু কোনোভাবেই কোরআনের একটি হরফও সংশোধন করা সম্ভব নয়। ধর্ম ব্যবসায়ীরা প্রকৃত ধর্ম থেকে দূরে গিয়ে নিজেদের স্বার্থ হাসিলে মরিয়া। তাদের কাছ থেকে দূরে থাকতে হবে।

মুন্সীগঞ্জ জেলা এলজিইডির উপ-পরিচালক এসএম শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণব কুমার ঘোষের পরিচালনায় এ সময় বক্তব্য রাখেন- মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের এমপি মাহী বি চৌধুরী, শ্রীনগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মসিউর রহমান মামুন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আহবায়ক মো. আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।