লঞ্চে শিশুর জন্ম, আজীবন যাতায়াত বিনামূল্যে

ঢাকা থেকে বরিশালে আসার পথে এমভি অ্যাডভেঞ্চার-৯ লঞ্চে নিরাপদে কন্যাসন্তান প্রসব করেছেন এক প্রসূতি। শিশুটি ভূমিষ্ট হওয়ার পর লঞ্চে মাইকে এর ঘোষণা দেয়া হয়। এতে লঞ্চে উৎসবের আমেজ ছড়িয়ে পড়ে। সবাই আদর করে ওই শিশুটির নাম রেখেছেন নুসাইবা।

এ ছাড়া সদ্য ভূমিষ্ট হওয়া শিশুসহ তার বাবা-মায়ের আজীবনের জন্য এ কোম্পানির লঞ্চে যাতায়াত ফ্রি করার ঘোষণা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন লঞ্চের সুপারভাইজার নুর খান মাসুদ।

শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টায় মেঘনা নদীতে চলমান ওই লঞ্চটিতে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে শিশুসন্তানসহ বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার দুধল এলাকার বাসিন্দা ফোরকান হাওলাদারের স্ত্রী ফাহিমা বেগম সুস্থ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

লঞ্চ স্টাফ সূত্রে জানা গেছে, বাকেরগঞ্জ উপজেলার দুধল এলাকার বাসিন্দা ফোরকান হাওলাদার ঢাকায় একটি গার্মেন্টে চাকরি করেন। তার গর্ভবতী স্ত্রী ফাহিমা বেগমকে নিয়ে শনিবার রাতে ঢাকা থেকে এমভি অ্যাডভেঞ্চার-৯ লঞ্চের ২১০ নম্বর কেবিনে করে বরিশালের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন।

রাত সাড়ে ১১টার দিকে স্ত্রী প্রসব বেদনা দেখা দিলে তিনি লঞ্চের অন্য যাত্রীদের সঙ্গে বিষয়টি শেয়ার করেন। সেখান থেকে বিষয়টি লঞ্চের দায়িত্বরত স্টাফরা জানতে পেরে দুজন নারীর সহায়তায় নিরাপদে বাচ্চা প্রসব করান। এ সময় গরমপানি, স্যাভলনসহ যাবতীয় সহায়তা করেন লঞ্চের স্টাফরা।

নিরাপদে শিশুটি ভূমিষ্ট হওয়ার পর গোটা লঞ্চে মাইকে এর ঘোষণা দেয়া হয়। এতে লঞ্চে উৎসবের আমেজ ছড়িয়ে পড়ে। লঞ্চের সুপারভাইজার নুর খান মাসুদ জানান, শিশুটি ও তার মা সুস্থ থাকলেও লঞ্চটিকে নিরাপদে যথাসম্ভব আগভাগে বরিশালে নেয়ার জন্য মাস্টারদের বলা হয়েছে। সেখানে কোম্পানির পক্ষ থেকে অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

এ ছাড়া হাসপাতালে ভর্তি করানো ও চিকিৎসার যাবতীয় সহায়তা কোম্পানির পক্ষ থেকেই করা হবে। এ খবর জানতে পেরে লঞ্চের যাত্রী একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তার কাছে থাকা মিষ্টি যাত্রীদের মধ্যে বিতরণ করেন।