কোপা আমেরিকায় কোয়ার্টার-ফাইনালে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মুখোমুখি হবে কি?

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মানেই শ্বাসরুদ্ধকর দ্বৈরত। ফুটবলবিশ্বের সবচেয়ে বেশি হাইভোল্টেজের ম্যাচ। এই দুইটি দলের মধ্যকার প্রতিদ্বন্দ্বিতাকে ‘দক্ষিণ আমেরিকানদের যুদ্ধ’ বলে অভিহিত করা হয়। সেই যুদ্ধের সেনা যখন নেইমার ও মেসি, তবে তো আর কথাই নেই।

বর্তমান ফুটবলবিশ্বে কে সেরা, সেই তর্ক যোগ হয়ে এই যুদ্ধে। তবে এমন যুদ্ধের অবতারণা তেমন একটা হয় না। প্রশ্ন উঠেছে, লাতিন আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে এবার দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মুখোমুখি হবে কি? মাঠে গড়াবে কি সেলেকাও বনাম আলবিসেলেস্তের ম্যাচ?

কোপা আমেরিকায় এখন পর্যন্ত হয়ে যাওয়া ম্যাচের ফলাফল বিশ্লেষণে যা জানা গেছে, কেবল ফাইনালেই দেখা হতে পারে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার। কারণ নিজেদের গ্রুপে ‘বি’ শীর্ষস্থান আগেই নিশ্চিত করেছে ব্রাজিল। শুক্রবার চিলিকে প্যারাগুয়ের হারানোর পর ‘এ’ গ্রুপে শীর্ষস্থান নিশ্চিত হয়ে যায় আর্জেন্টিনার।

তিন ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে আর্জেন্টিনা। ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে প্যারাগুয়ে। চার ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে চিলি আছে তৃতীয় স্থানে। বলিভিয়াকে হারিয়ে উরুগুয়ের অবস্থান চার নম্বরে। গ্রুপের তলানিতে বলিভিয়া। নিয়ামানুযায়ী ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন কোয়ার্টার-ফাইনালে খেলবে ‘এ’ গ্রুপের চতুর্থ হওয়া দলের বিপক্ষে।

সে হিসেবে, শেষ আটে ব্রাজিলের মুখোমুখি হতে পারে লুইস সুয়ারেজের উরুগুয়ে। আর একুয়েডরের বিপক্ষে খেলবে আর্জেন্টিনা। তবে কোয়ার্টার-ফাইনালে শক্তিশালী ব্রাজিলের মুখোমুখি হওয়া এড়ানোর সুযোগ আছে উরুগুয়ের সামনে। গ্রুপ পর্বের শেষ রাউন্ডে প্যারাগুয়েকে হারাতে পারলে পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয় স্থান দখল করবে উরুগুয়ে। সেক্ষেত্রে চিলিকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পাবে ব্রাজিল।

শেষ রাউন্ডে ‘বি’ গ্রুপের পয়েন্ট তালিকাতেও পরিবর্তন আসার সুযোগ রয়েছে। এই গ্রুপের শেষ রাউন্ডে বাংলাদেশ সময় সোমবার ভোরে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ একুয়েডর; অন্য ম্যাচে মুখোমুখি হবে পেরু-ভেনেজুয়েলা। ‘এ’ গ্রুপের শেষ রাউন্ডে বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার ভোরে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ বলিভিয়া; প্যারাগুয়ে খেলবে উরুগুয়ের বিপক্ষে।

ব্রাজিল কোয়ার্টার-ফাইনালে জিতলে শেষ চারে তারা মুখোমুখি হবে প্রথম কোয়ার্টার-ফাইনালের বিজয়ীর সঙ্গে। যেখানে লড়বে ‘বি’ গ্রুপের রানার্সআপ ও ‘এ’ গ্রুপের তৃতীয় হওয়া দল। আর্জেন্টিনা শেষ ম্যাচে হোঁচট খেলেও অন্তত গ্রুপ রানার্সআপ হবে।

তাই গ্রুপের শেষ রাউন্ডের ফল যাই হোক না কেন, কোয়ার্টার-ফাইনালে দ্বিতীয় অর্ধে পড়বে আর্জেন্টিনা। সেক্ষেত্রে সেমিফাইনালেও ব্রাজিলের সঙ্গে দেখা হচ্ছে না আর্জেন্টিনার। সেমিতে জিতে ফাইনালে উঠলেই কেবল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের দেখা হচ্ছে।