লকডাউনে এনজিওর কিস্তি আদায় বন্ধের নির্দেশ

প্রানঘাতী করোনা সংক্রমণ রোধে আগামী সোমবার (২৮ জুন) থেকে লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। যশোরে লকডাউনে সব এনজিও প্রতিষ্ঠানের ক্ষুদ্র ঋণের কিস্তি আদায় সাময়িক বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) যশোর জেলার প্রশাসক এর পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রফিকুল হাসান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মহামারি করোনাভাইরাস এর সংক্রমণ ও মৃত্যুহার যশোর জেলায় অতিমাত্রায় বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে সময় সময় জারিকৃত পরিপত্র এবং এবং জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। ফলে শ্রমজীবি, কৃষক,

ভ্যান রিক্সা চালক, চায়ের দোকানসহ নিম্নআয়ের খেটে খাওয়া মানুষ ঋণের কিস্তি প্রদানে অসমর্থ হয়ে পড়েছে । এমতাবস্থায় এই জেলায় কর্মরত সকল এনজিও প্রতিষ্ঠান প্রধানকে ক্ষুদ্র ঋণের কিস্তি আদায় কার্যক্রম সাময়িক বন্ধ রাখার জন্য অনুরোধ করা হল।

উল্লেখ্য, বেনাপোল ও শার্শা উপজেলায় লকডাউনের সময়ে ভুক্তভোগি খেটে খাওয়া ঋণ গ্রহীতা যখন তাদের সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে, তখন এনজিও কর্মীরা বাড়ি বাড়ি কিস্তি আদায়ের জন্য ধরণা দিচ্ছে। তাই সব এনজিও প্রতিষ্ঠানের ক্ষুদ্র ঋণের কিস্তি আদায় সাময়িক বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসন।