সেই নারীর মুখে নি’র্যা’ত’নের বর্ণনা

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে বি’ব’স্ত্র করে নি’র্যা’ত’নের শি’কা’র গৃহব’ধূ’র সঙ্গে দেখা করেছেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন (পিপিএম)। মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) সকালে ভুক্তভোগীর কাছ থেকে ঘটনার বিস্তারিতও শুনেছেন তিনি। বেগমগঞ্জ মডেল থানায় ভুক্তভোগী ও তার পরিবারের সঙ্গে একান্তে কথা বলেন ডিআইজি।

৩০ মিনিটের মতো ভুক্তভোগী ও তার স্বজনদের সঙ্গে আলাপের পর স্থানীয় সংবাদকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি। এ সময় মো. আনোয়ার হোসেন (পিপিএম) জানান, নি’র্যা’তি’তা নারীর মুখ থেকে তিনি বিস্তারিত শুনেছেন। এ ঘটনায় কী করণীয় সে বিষয়ে পুলিশ সদস্যদের দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করছে পুলিশ। ওই নারী ও তার স্বজনদের নিরাপত্তার বিষয়টিতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী ওই নারী বলেন, “ওরা অনেক চেষ্টা করেছে। কিন্তু আমি আমার সম্ভ্রমটা রক্ষা করতে পেরেছি। কিন্তু তারা এই ভিডিওটা করে ফেলেছে। এই ঘটনার পরও তারা আমাকে একাধিকবার কু’প্র’স্তা’ব দেয় যে, তুমি এসব করো, তা না হলে ভিডিও ফাঁ’স করে দেবো। এবং শেষ’পর্য’ন্ত তারা ভিডিও ছে’ড়ে দিয়েছে।”

জবানব’ন্দি’তে নি’র্যা’ত’নের শি’কা’র ওই নারী অভি’যো’গ করেন, তিনি নি’র্যা’ত’নের ঘটনাটি ঘটার সাত থেকে আটদিন পর ইউপি সদস্যের বাড়িতে গিয়ে জানান। ইউপি সদস্য তাকে ঘটনাটি চে’পে যেতে বলেন।

ডিআইজি আনোয়ার হোসেন (পিপিএম) বলেন, ‘নোয়াখালীতে দেলোয়ার বাহিনীর মতো তথাকথিত যেসব বাহিনী রয়েছে সেগুলো চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে।’ পরে নোয়াখালীর পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান শেখ ও বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি মো. হারুনুর রশিদ চৌধূরীসহ বেগমগঞ্জের একলাশপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের খালপাড় এলাকায় ওই নারীকে নি’র্যা’তন করা সেই টিনের ঘর পরিদর্শনে যান চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি।

এদিকে বেগমগঞ্জের ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ আরো দুজনকে গ্রে’প্তা’র করেছে পুলিশ। এ নিয়ে ঢাকা ও নোয়াখালীতে এখন পর্যন্ত মা’ম’লা’র এজাহারভুক্ত চারজনসহ মোট ছয়জন আ’সা’মি’কে গ্রে’প্তা’র করা হয়েছে। নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান শেখ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। গ্রে’প্তা’র’কৃত’দের একজন মা’ম’লার এজাহারের ৫ নম্বর আ’সা’মি মো. সাজু (২১)। আরেকজন নি’র্যা’ত’নে’র শি’কা’র নারীর ২২ ধারার জবান’ব’ন্দিতে অভিযুক্ত একলাশপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন সোহাগ (৪৮)।

গতকাল সোমবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান শেখ জানান, প’লা’তক আ’সা’মি সাজুকে রাত দেড়টার দিকে ঢাকার শাহবাগ এলাকা থেকে জেলা পুলিশের একটি দল গ্রে’প্তা’র করে। আর মোয়াজ্জেম হোসেনকে রাত সাড়ে ১২টার দিকে জয় কৃষ্ণপুর এলাকা থেকে গ্রে’প্তা’র করা হয়েছে। মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও বলেন, গ্রে’প্তা’র দুই ‘আ’সা’মি’কে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মঙ্গলবার আদালতে হাজির করা হতে পারে। এ ছাড়া ঢাকায় গ্রে’প্তা’র মা’ম’লা’র প্রধান আ’সা’মি নূর হোসেন বাদলকে গত রোববার রাতে বেগমগঞ্জ থানা-পুলিশের কাছে হস্তা’ন্ত’র করেছে র‌্যাব। তাকেও আজ আদালতে হাজির করা হবে।