যুক্তরাজ্যের ইতিহাসে প্রথম মুসলিম স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাজিদ জাবিদ

যুক্তরাজ্যের সাবেক অর্থমন্ত্রী পাকিস্তান বংশোদ্ভূত সাজিদ জাবিদ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব নিচ্ছেন বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি। দায়িত্ব নিলে তিনিই হবেন যুক্তরাজ্যের ইতিহাসে প্রথম কোনো মুসলিম স্বাস্থ্যমন্ত্রী।এক টুইট বার্তায় সাজিদ নিজেই এ ঘোষণা দিয়েছেন। এ ছাড়া স্থানীয় সময় শনিবার (২৬ জুন) দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের কার্যালয় থেকে নতুন স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে সাজিদ জাবিদের নাম ঘোষণা করা হয়।

অর্থমন্ত্রীর পদ থেকে ম্যাট হ্যানককের পদত্যাগের পর শনিবার প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের কার্যালয় থেকে নতুন স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে সাজিদ জাভিদের নাম জানানো হয়। খবর আনাদোলু ও রয়টার্সের।প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের ইচ্ছা অনুসারে গত বছর রাজনৈতিক উপদেষ্টাদের চাকরিচ্যুত করতে তিনি রাজি হননি। এই মতবিরোধের কারণে সাজিদ জাভিদ অর্থমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন।

করোনার স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্বের বিধিনিষেধ ভেঙে সহকারীকে চুমু খাওয়ার জেরে গত শনিবার পদত্যাগ করেন হ্যানকক। তার ওই ছবি সংবাদপত্রে প্রকাশিত হওয়ার পর ব্যাপক সমালোচনা হয়।গিনা কোলাড অ্যাঞ্জেলো নামের ওই সহকারীকে ম্যাট হ্যানকক নিজেই নিয়োগ দিয়েছিলেন। তার সঙ্গে অন্তরঙ্গ ছবি প্রকাশ পাওয়ার পর দুঃখপ্রকাশ করে ক্ষমাও চান হ্যানকক। পরে পদ ছাড়তে বাধ্য হন।

লেবার পার্টির পক্ষ থেকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের প্রতি হ্যানকককে মন্ত্রিসভা থেকে বরখাস্ত করার দাবি জানানো হয়। হ্যানকক ও কোলাড অ্যাঞ্জেলো দুজনই বিবাহিত। তাদের তিনটি করে সন্তানও রয়েছে। তাদের অন্তরঙ্গ ছবি গত ৬ মে স্বাস্থ্য বিভাগের ভেতরেই তোলা হয়। এদিকে টুইট বার্তায় সাজিদ জাবিদ জানান, এই গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পাওয়ায় সম্মানিত বোধ করছি। আশা করি, মহামারি করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অবদান রাখতে পারব। মন্ত্রিসভায় অংশ নিয়ে দেশের সেবা করে যাব।