শিমুলিয়া-বাংলাবাজারে মানুষের ঢল, ঝুঁকি নিয়ে পারাপার

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে দক্ষিণবঙ্গগামী যাত্রীদের চাপ বেড়েছে। রোববার সকাল থেকে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে দিয়ে বিচ্ছিন্নভাবে লোকজন ছুটছে দক্ষিণবঙ্গের উদ্দেশে। সড়ক-মহাসড়কে দূরপাল্লার যানবাহন বন্ধ থাকায় ভেঙে ভেঙে বিভিন্ন ছোট ছোট যানবাহন— মোটরসাইকেল, প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাসে তারা যাচ্ছে শিমুলিয়াঘাটের উদ্দেশে।

জানা যায়, লৌহজং ও শ্রীনগরের কয়েকটি স্পট থেকে যাত্রীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা নদী পার হচ্ছেন ট্রলারে করে। বাস বন্ধ থাকায় ভেঙে ভেঙে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া দিয়ে গন্তব্যে ছুটছেন বাড়িফেরা মানুষ। প্রতিটি গাড়িকেই পুলিশের তল্লাশিচৌকি পার হতে হচ্ছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কোনো গাড়িকেই ঢাকায় ঢুকতে বা বের হতে দেওয়া হচ্ছে না।

বিআইডব্লিউটিসি শিমুলিয়াঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) ফয়সাল আহমেদ বলেন, শিমুলিয়াঘাটে এখন ১৬টি ফেরি সচল রয়েছে। লকডাউনের নিয়ম অনুযায়ী ফেরিতে শুধু রোগী বহনকারী গাড়ি এবং জরুরি পণ্য পরিবহণের গাড়ি ছাড়া সব কিছু পারাপারে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। মানুষের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও ঘাটে ভিড় জমাচ্ছেন যাত্রীরা।