সিডন্সের পরিবর্তে কেন প্রিন্স? জানালেন আকরাম খান

বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং কোচ হিসাবে দায়িত্ব নিচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান অ্যাশওয়েল প্রিন্স। এছাড়া স্পিন বোলিং কোচ হিসাবে যোগ দিচ্ছেন শ্রীলংকার স্পিন গ্রেট রঙ্গনা হেরাথ। বাংলাদেশ দলের সঙ্গে হেরাথের সংযুক্তির বিষয়টি অনেকটা নির্ধারিতই ছিল। শুধু অনেক বেশি বেতন চাওয়ায় লঙ্কান এই কিংবদন্তি স্পিনারের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছিল না বিসিবির।

তবে ব্যাটিং কোচ হিসেবে জেমি সিডন্সের নামই শোনা যাচ্ছিল প্রথম থেকে। প্রিন্সের নামও মুখে আনেননি বিসিবির কর্মকর্তারা। কিন্তু শনিবার হঠাৎ করেই সিডন্স অধ্যায়ের পাঠ চুকিয়ে ব্যাটিং কোচের পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে অ্যাশওয়েল প্রিন্সকে। এ খবরের পর প্রশ্ন ওঠাই স্বাভাবিক, প্রিন্স কেন? তিনি তো আলোচনায়ই ছিলেন না।

প্রিন্সকে নেওয়ার ব্যাখা দিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান। বললেন, খেলোয়াড় হিসেবে প্রিন্সের অনেক সুনাম আছে। হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোর সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করেই আমরা তাকে নিয়েছি। ডোমিঙ্গো তাকে খুব হাইলি র্যাং ক করেছে। তাই শুধু জিম্বাবুয়ে সিরিজের জন্য প্রিন্সকে আমরা নিয়েছি। তারপর আমরা দেখে ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করব।

সিডন্সকে ব্যাটিং কোচ নেওয়া হতে পারে এমন গুঞ্জনের বিষয়ে আকরাম খান বলেন, শুধু সিডন্সই নন, অনেকেই তো ছিলেন। আরও তিন-চার জনের নাম ছিল। আমরা চেষ্টা করেছিলাম। যারা দলে আছে তাদের সঙ্গে কিছু আলাপ আলোচনা করেই আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

প্রসঙ্গত, অ্যাশওয়েল প্রিন্সকে নেওয়া হয়েছে আপাতত জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ পর্যন্ত। হেরাথের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত। তাদের কাজ পছন্দ হলে দীর্ঘ মেয়াদের ভাবনায় যাবে বোর্ড। বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে ৯৩ টেস্টে ৪৩৩ উইকেট শিকারি হেরাথ ওয়ানডেতে ৭১ ম্যাচে নিয়েছেন ৭৪ উইকেট, টি ২০তে ১৭ ম্যাচে ১৮টি।

৪৩ বছর বয়সি হেরাথের কোচিং ক্যারিয়ার শুরু হবে বাংলাদেশকে দিয়েই। আইসিসি ও ক্রিকেট শ্রীলংকার লেভেল থ্রি কোচিং কোর্স করেছেন তিনি। হেরাথের আগে বাংলাদেশের স্পিন বোলিং কোচ ছিলেন নিউজিল্যান্ডের ড্যানিয়েল ভেট্টোরি। আর ৪৪ বছর বয়সি অ্যাশওয়েল প্রিন্স দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলের হয়ে ৬৬টি টেস্ট,

৫২টি ওয়ানডে ও ১টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। টেস্টে ১১টি শতক ও ১১টি অর্ধশতক এবং ওয়ানডেতে ৩টি অর্ধশতক আছে তার। কয়েক বছর ধরে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা আছে অ্যাশওয়েল প্রিন্সের।