কোয়ার্টার ফাইনালের আগেই নিজেদের দেশে ফিরে যাবে আর্জেন্টিনা

নিঃসন্দেহে ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা। ৯০ মিনিটের এই খেলায় খেলোয়াড় এবং দর্শকদের মধ্যে বেশ উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। আর খেলা মানেই রেকর্ড ভাঙ্গার প্রতিযোগিতা। একজন খেলোয়াড়ের রেকর্ড আরেক খেলোয়াড় ভেঙ্গে দিয়ে নতুন রেকর্ড গড়বে, সৃষ্টি করবে নতুন এক ইতিহাস।

নতুন খবর হচ্ছে, চলতি কোপা আমেরিকার আয়োজক দেশ ছিল আর্জেন্টিনা। করোনা অবস্থার অবনতি না ঘটলে, নিজেদের ঘরের মাঠেই কোপার ম্যাচগুলো খেলতে পারতেন লিওনেল মেসি, সার্জিও আগুয়েরোরা। তার বদলে এখন কোপার আসর বসেছে চির প্রতিদ্বন্দ্বী দেশ ব্রাজিলে।

তবে পুরো টুর্নামেন্ট ব্রাজিলে হলেও, কোয়ার্টার ফাইনালের আগে নিজেদের দেশে ফিরে যাবেন আর্জেন্টিনা। এমন নয় যে, কোয়ার্টারের টিকিট পায়নি তারা কিংবা করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে স্থগিত হতে চলেছে টুর্নামেন্ট। বরং পূর্ব গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ীই দেশে ফিরবে ১৪ বারের কোপা চ্যাম্পিয়নরা।

আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, কোপা আমেরিকার শুরু থেকে নিজেদের দেশেই ক্যাম্প গড়েছে আর্জেন্টিনা ফুটবল দল। অর্থাৎ অনুশীলন ও আবাসন আর্জেন্টিনায়ই, শুধু ম্যাচের আগে ব্রাজিলে গিয়ে ম্যাচ খেলে তারা। পরে আবার ফিরে আসে তারা।

সেই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার (২৯ জুন) ভোরে বলিভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের পর দেশে ফিরবে তারা। এরপর আবার ব্রাজিলে যাবে কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচের আগে। সম্ভাব্য সূচি অনুযায়ী ৪ জুলাই (রোববার) পড়তে পারে আর্জেন্টিনার কোয়ার্টার ফাইনাল। তাই মাঝের দিনগুলোতে অনুশীলনের জন্য দেশে ফিরবে তারা।

আর্জেন্টিনার এজেইজায় নিজেদের ক্যাম্প গড়েছে আর্জেন্টিনা। রাজধানী বুয়েনস আয়ার্স অঞ্চল অধিভুক্ত একটি শহর এজেইজা। দেশটির ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনই দেখভাল করছে সেখানে গড়া এই অনুশীলন ক্যাম্পের।
গত ১৫ জুন চিলির বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ খেলে দেশে ফিরে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা ফুটবল দল।

পরে ব্রাজিলে ফিরে খেলেছে উরুগুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ। এরপর এজেইজায় ফেরেনি তারা। কারণ দুইদিন বিরতিতেই ছিল প্যারাগুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ। সেই ম্যাচ জিতে কোয়ার্টার ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করে এক সপ্তাহের জন্য এজেইজায় ফিরে যান মেসিরা। দেশের মাটিতে প্রস্তুতি সেরে ফের বলিভিয়া ম্যাচের জন্য আজ (রোববার) ব্রাজিল চলে গেছে আলবিসেলেস্তেরা। এই ম্যাচ খেলে আবার ফিরবেন দেশে।