প্রেমের টানে ভারতীয় কিশোরী রংপুর এসে পুলিশের হাতে ধরা

প্রেমই মুক্তি, প্রেমই শক্তি, প্রেমই পরিবর্তনের গুপ্তশক্তি, প্রেমই দিব্য সৌন্দর্যের দর্পন স্বরুপ। প্রেমের নীরব স্বপ্ন যত মধুর তার অর্ধেক মধুরতাও জীবনে আর কিছুতেই নেই। তবে আছে মুদ্রার উল্টা পিঠ।

নতুন খবর হচ্ছে, প্রেমের টানে ভারত থেকে বাংলাদেশ এসে পুলিশের হাতে ধরা খেলেন প্রীতি পন্ডিত নামে এক কিশোরী। আজ রবিবার দুপুরে প্রেমিক মিলন পালিয়ে গেলেও তার সহযোগীসহ ওই কিশোরীকে আদালতে হাজির করা হয়েছে। এর আগে শনিবার দুপুরে মিঠাপুকুর উপজেলার রানীপুকুর ইউনিয়নের নূরপুর বালাপাড়া এলাকার জনৈক লতিফুল ইসলামের বাড়ি থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

রংপুর সদর কোতয়ালি থানার ওসি (তদন্ত) মমতাজ আলী জানান, ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার মন্টু পন্ডিতের মেয়ে প্রীতি পন্ডিতের (১৭) সঙ্গে রংপুর সদর উপজেলার সদ্যপুস্করিণী ইউনিয়নের মহির উদ্দিনের ছেলে মিলনের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় ঘটে। এরপর দু’জনের মধ্যে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক।

সেই টানে গত ২৪ জুন ভারত থেকে যশোরের বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আসে প্রীতি। গত কয়েকদিন ধরে রংপুরের সদ্যপুস্করিণী ইউনিয়নের পালিচড়া ফাজিল খা গ্রামে মিলনের বাড়িতে অবস্থান করছিল প্রীতি। রংপুর সদর কোতয়ালি থানার ওসি (তদন্ত) আরো জানান, এ খবর পেয়ে খবর পেয়ে শনিবার দুপুরে অভিযানে নামে পুলিশ।

তবে পুলিশের অভিযানের খবর পেয়ে পালিয়ে যায় তারা। পরে মিলনের সহযোগী একই গ্রামের বাবলু মিয়ার ছেলে হাবিবুর রহমানকে (২৪) পার্শ্ববর্তী মিঠাপুকুর উপজেলার রানীপুকুর ইউনিয়নের নূরপুর বালাপাড়া এলাকার জনৈক লতিফুল ইসলামের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় গ্রেপ্তার করা হয় প্রীতি পন্ডিতকেও।