মগবাজারে বিস্ফোরণ কেড়ে নিল ইঞ্জিনিয়ার নোমানকে

গত রোববার ঢাকার মগবাজারে ভবন বিস্ফোরণে জয়পুরহাটের পাঁচবিবির ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার রুহুল আমিন নোমান (৩২) নিহত হয়েছেন। তিনি পাঁচবিবি পৌর এলাকার ডা. খয়বর আলীর একমাত্র ছেলে। নোমান সংসার জীবনে ২ বছরের এক কন্যা সন্তানের বাবা ছিল। নোমানের অকাল মৃত্যুর খবর বাড়িতে এসে পৌঁছালে পরিবার ও স্বজনদের কান্নায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

নোমানের বাবা কাঁদতে কাঁদতে যুগান্তরকে বলেন, আমার বড় ২ মেয়ে আর সবার ছোট একমাত্র ছেলে ছিল নোমান। নোমান অনেক আগে থেকেই ঢাকার ধানমণ্ডির একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইলেকিট্রক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়ালেখা করে। পড়ালেখা শেষে ছেলে ‘রহমান রহমান অ্যাসোসিয়েট’ নামের একটি কোম্পানি চাকরি করত।

প্রতিদিনের মতো ঘটনার দিনও মগবাজার চৌরাস্তার মোড় অফিস শেষে মালিবাগ বাসায় ফিরছিল বিস্ফোরিত ওই ভবনের পাশের পথ দিয়ে। হঠাৎ বিস্ফোরণে ভবনের ছাদ ভেঙ্গে অন্যদের ন্যায় নোমানও ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ছেলের লাশ নিয়ে ঢাকায় অবস্থানরত বড় মেয়ের স্বামী পাঁচবিবির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে বলে জানান ডা. খয়বর।