আমির-কিরণের বিচ্ছেদ নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেতার বন্ধু

বলিউড অভিনেতা আমির খান ও তার স্ত্রী কিরণ রাও বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়েছেন। ১৫ বছরের নির্ভেজাল দাম্পত্য জীবনের ইতি টানলেন তারা। এ দম্পতি এমন সিদ্ধান্ত নেবেন তা কল্পনায় ছিল না সিনেপ্রেমীদের। ভেঙে পড়েছেন আমির খানের ভক্ত-নুরাগীরা। ভেঙে পড়েছেন আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুবান্ধবরাও। বলিউডপাড়াও এমন খবরে বিস্মিত।

আমির-কিরণের এমন সিদ্ধান্তে যারপরনাই বিস্মিত ও হতাশ তাদের ঘনিষ্ঠ বন্ধু আমিন হাজি। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টের পাশাপাশি বিচ্ছেদের খবর আমিন হাজিকে জানিয়েছিলেন কিরণ। ভারতীয় গণমাধ্যমকে আমিন হাজি জানান, এ মুহূর্তে কিরণ এবং ছেলে আজাদের সঙ্গে কার্গিলে রয়েছেন আমির। সেখান থেকে একসঙ্গে ছবি তুলে বিচ্ছেদের কথা উল্লেখ করে হাজিকে পাঠান কিরণ।

আমিন হাজি বলেন, ঘনিষ্ঠ বন্ধু হওয়ার খাতিরে যদিও আমি আমির-কিরণের দাম্পত্য জীবনের সমস্যার কথা জানতাম, তবে তারা যে গত শনিবার আচমকা বিবাহবিচ্ছেদের কথা ঘোষণা করে দেবেন, সেটি ভাবতেই পারিনি। খবরটি এখনও হজম হয়নি আমার।

আমির-কিরণের বিয়ের অনেক দায়িত্ব পালন করেছিলেন আমিন হাজি। তাদের বিয়ের সময়ে আমিরের ‘বেস্ট ম্যান’ হয়েছিলেন হাজি। যাকে বলা হয় বরের ডান-হাত বা মুখপাত্র। আবার হাজির বিয়েতে আমির তার ‘বেস্ট ম্যান’ হয়েছিলেন।

আমির ও কিরণের বিচ্ছেদকে নিজের পরাজয় বলে মন্তব্য করেছে হাজি। সম্পর্কে চিড় ধরার পর হাজি একাধিকবার আমিরকে বোঝানোর চেষ্টাও করেছিলেন। বিষয়টি নিয়ে কিরণের সঙ্গেও কথা বলেছিলেন। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। তবে এ তারকা দম্পতির সিদ্ধান্তকে সম্মান জানান হাজি। বলেন, ‘আমির-কিরণের বিচ্ছেদের বিরুদ্ধে ছিলাম আমি।

তবে তাদের এ সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাই। আমি বিশ্বাস করি, অনেক ভেবেচিন্তেই তারা দুজনে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কেউই কোনো হুজুগে পদক্ষেপ করছেন না। এটিই এখন মেনে নিতে হবে আমাদের। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে— যদি তাদের বলতে পারতাম, বিচ্ছেদ ঘটিও না, তা হলে ভালো হতো।’

তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা