৪ জনের কথা বলে ৬ জনে ‘শা’রী’রি’ক’ ‘স’ম্প’র্ক’ করে টা’কা না দেয়ায় ‘ধ’র্ষ’ণ’ ‘মা’ম’লা’!

মতিউর রহমান মুন্না, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: নবীগঞ্জে আউশকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের পরি’ত্যক্ত ভবনে আলোচিত গৃহ’বধূ কথিত ‘ধ’র্ষ’ণে’র’ ‘অভি’যো’গের চাঞ্চ’ল্যকর তথ্য বেরিয়ে এসেছে। আট’ক’কৃত যুবক, কথিত ‘ধ’র্ষি’তা’ গৃহ’বধূ ও তার স্বামীকে ত্রিমুখী জিজ্ঞা’সা’বাদে ঘটনার রহস্য উদ’ঘাটন করেছে ‘পু’লি’শ’।

গত মঙ্গলবার রাতে আট’ক’কৃত সাইফুল ইসলাম ‘আ’দা’ল’তে ১৬৪ ধা’রায় জবা’নব’ন্দিতে জানায় ‘ওই মহিলা একজন ‘যৌ’ন’ক’র্মী’। তাকে ২ হাজার টাকা চু’ক্তিতে আনা হয়ে’ছিল। পরে ‘যৌ’ন’মি’ল’ন’ শেষে টাকা না দে’য়ায় এমন না’টক সাজি’য়েছে।’

‘পু’লি’শ’ ও দায়ি’ত্বশীল সূত্র জানায়, উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের কালাভরপুর গ্রামের ওই ‘গৃহ’বধু’র ইতিপূর্বে চারটি বি’য়ে হয়। পারিবা’রিকভাবে পৌর এলাকার গন্ধা গ্রামের এক ব্যক্তির সাথে বি’য়ে দেয়া হয়। অবা’ধ চলা’ফেরার কারণে অল্পদিনেই বি’বাহ বি’চ্ছেদ ঘটে। এরপর গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইহাল গ্রামে ২য় বি’য়েরও বি’চ্ছে’দ ঘটে। এক’পর্যায়ে সে সকলের অগো’চরে উমান চলে যায়। কিছুদিন পর দেশে আসে। এরপর কুর্শি ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামের আরেক ব্যক্তির সঙ্গে ৩য় বি’য়েতে ‘আ’ব’দ্ধ’ হয়।

কিছুদিন পর এ বি’য়েও ‘ভে’ঙে’ যায়। ৪র্থ বি’য়ে হয় আজমেরীগঞ্জ উপজেলার শিবপাশা গ্রামের কাশেম মিয়ার সা’থে। বর্তমানে সে ওই স্বা’মীর সাথে রয়েছে। ‘আলো’চিত ‘ঘটনায় ‘পু’লি’শে’র’ ব্যা’পক জি’জ্ঞা’সা’বা’দে ক’থিত ‘ধ’র্ষ’ন’ ঘট’নার র’হস্য উদ’ঘাটন করেন এ’এ’সপি পারভেজ আলম চৌধুরী ও ‘থা’না’র’ ওসি আজিজুর রহমান।

‘পু’লি’শ’ সূত্রে জানা যায়, ‘জি’জ্ঞা’সা’বা’দে’ ধৃত আসামি সাইফুল মিয়া জা’নায়- ‘ওই ম’হিলা তাদের সহ’ক’র্মী জামিলের পরিচিত। এমনকি এই মহিলা একজন ভা’সমা’ন ‘যৌ’ন’ক’র্মী’। তারা ৪ জনে ‘যৌ’ন’মি’ল’ন’ করার জন্য ২ হাজার টাকা ‘চু’ক্তি’তে’ ওই মহিলাকে নিয়ে আ’সেন। তারা মহি’লাকে সিএ’নজি অটো’রিকশা দিয়ে শেরপুর থেকে নিয়ে আসেন। আউশকান্দি ইউনিয়ন অফিসের ‘প’রি’ত্য’ক্ত’ ভবনে এনে ম’হিলার সা’থে ‘যৌ’ন’মি’ল’ন’ করে ৪ খ’দ্দের। পরে আরো ২ জন আসে। কিন্তু ম’হিলা তাদের সা’থে শা’রী’রি’ক’ মি’ল’নে মি’লি’ত হতে রা’জি হ’ন’নি’।

মহিলা ‘প্র’তি’বা’দী’ সুরে জানায় তাকে ২ হাজার টাকায় ৪ জনের কথা বলে আনা হয়েছে। এর বা’হিরে আর কারো সা’থে ‘যৌ’ন’মি’ল’ন’ ক’রতে পা’র’বে’ না’। এ নিয়ে ‘হ’ট্ট’গো’ল’ হয়। ‘অ’তঃ’প’র’ খদ্দে’ররা সারা’ রা’ত’ মহি’লার সা’থে ‘জো’র’পূ’র্ব’ক’ ‘অ’নৈ’তি’ক’ ‘শা’রী’রি”ক’ মি”লনে’র পর ভোরে মহিলাকে একা ঘরে রে’খে টা’কা না দি’য়েই পা’লি’য়ে যায়। চুক্তির ভিত্তিতে টাকা না দেয়া নিয়ে ‘বি’প’ত্তি দেখা দেয়। ঘ’টনা প্রকাশ হয়ে গেলে সৈঈদপুর বাজারের বি’ভ’ক্ত শ্রমিকদের একটি গ্রু’প ওই মহি’লাকে দিয়ে ‘ধ’র্ষ”ণে’র’ না’টক তৈরি করে।

এদিকে, এনিয়ে গৃহ’বধূ’কে ‘জি’জ্ঞা’সা’বা’দ’কা’লে তথ্য প্রমা’ণ উপস্থা’পনের পর সে সত্য’তা ‘স্বী’কা’র’ করে। এ সময় কথিত ওই গৃহ’বধুকে তার পারি’বারিক ‘জি’ম্মা’য়’ দেয়ার চে’ষ্টা করে ‘পু’লি’শ’। ওই মহিলা পরি’বারের ‘জি’ম্মা’য়’ যেতে ‘অ’স্বী’কা’র’ করে তার চতুর্থ স্বা’মী এবং ‘শাশু’ড়ির ‘জি’ম্মা’য়’ যেতে চায়।

হবিগঞ্জ পু’লি’শ সু’পারের ‘নির্দে’শনা’য় তাকে চতুর্থ স্বামীর ‘জি’ম্মা’য়’ দেয়া হয়। অপরদিকে, ‘আ’ট’ক’ ‘অ’ভি’যু’ক্ত’ ‘অ’টোরিকশা (সিএন’জি) চালক সাইফুলকে ‘কো’র্ট’ হা’জ’তে’ প্রে’রণ করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে তাকে হবিগঞ্জ জুডি’শিয়াল ম্যাজি’ষ্ট্রিট ‘আদা’লতে’ পা’ঠানো হয়।

এ খ’বর নি’শ্চিত করেন ‘মা’ম’লা”র’ ত’দ’ন্ত কর্ম’কর্তা ওসি (‘ত”দ’ন্ত’) উত্তম কুমার দাশ। এ ঘট’নায় থা’নায় ৬ জনের ‘বি’রু”দ্ধে’ ‘মা’ম”লা’ হ’য়েছে। অপর ‘অ’ভি’যু’ক্ত’দে’র’ ‘গ্রে’ফ’তা’রে’র’ জন্য অ’ভি’যা”ন’ চ’লছে।

উ’ল্লেখ্য, গত সোমবার রাত’ভর ক’থিত ‘ধ’র্ষ’ণে’র’ ‘শিকা’র’ গৃহ’বধূর ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য নিয়ে নানা ‘না’ট’কি’য়”তা দেখা দেয়। এনিয়ে রাত’ভর গৃহ’বধূ ও তার স্বামীকে নবীগঞ্জ ‘থা’না’য়’ ‘ব্যা’প’ক’ ‘জি’জ্ঞা’সা’বা’দ” করে ‘পু’লি’শ’। এক’পর্যায়ে ৬ জনের নামে ‘থা’না’য়’ ‘মা’ম’লা’ হয়। এরই ভি’ত্তিতে ২নং ‘অ’ভি’যু’ক্ত’ আউশকান্দি ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামের সাদিক মিয়ারপুত্র সাইফুলকে প্র’যু’ক্তি’র সহায়’তায় মঙ্গলবার রাতে একই ইউনিয়নের মিনহাজপুর গ্রাম থেকে ‘গ্রে’ফ’তা’র’ করে ‘পু’লি’শ’।

আলো’চিত ঘট’নায় হবিগঞ্জ ‘পু’লি’শ’ সুপার মোহাম্মদ উল্লার নির্দে’শনায় ‘পু’লি’শে’র’ চারটি দল মাঠে স’র’ব হয়। মা’ঠে থেকে ঘট’না’র মনি’টরিং’ করেন, নবীগঞ্জ-বাহুবলের সা’র্কে’ল এ’এ’স’পি’ পারভেজ আলম চৌধুরী এবং নবীগঞ্জ ‘থা’না’র’ ও’সি মোঃ আজিজুর রহমান।