ভুঁড়ি নিয়ে জেরবার? এ সব খান আর মেদ ঝরান ঝটপট

সামান্য অনিয়মেই ওজন বেড়ে যায়? তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ে ভুঁড়ি? পেটের বাড়তি চর্বি কিন্তু কেবল চেহারার আকর্ষণই কমায় না, ঘা মারে আত্মবিশ্বাসেও। ডেকে আনে নানা অসুখ। জিমে গিয়ে ওয়ার্ক আউট কিন্তু ভুঁড়ির একমাত্র সমাধান নয়। বরং এ সব শাক-সবজি যদি রাখতে পারেন খাদ্যতালিকায়, তা হলেই জব্দ হবে ভুঁড়ি। দেখে নিন কী কী। ছবি: শাটারস্টক।

শাক: বিভিন্ন শাক ও সবুজ পাতায় রয়েছে ভুঁড়িকে কবজা করার অব্যর্থ দাওয়াই। চিকিৎসকদের মতে, যে সব খাবারে পেটের চর্বি কমে, শাক তাদের মধ্যে অন্যতম। ব্রেকফাস্ট বা দুপুরে পাতে থাক শাক। কম ক্যালোরির এই খাবার অনেকের হজমের সমস্যা করে, সে ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে পরিমাণ বুঝে শাক খান। ছবি: আনস্প্ল্যাশ।

ব্রকোলি: এতে প্রচুর ফাইবার, বিভিন্ন খনিজ লবণ ও ভিটামিন তো আছেই, সঙ্গে রয়েছে ফটোকেমিক্যাল। এটি চর্বি জমতে দেয় না শরীরে। তাই ব্রকোলিতে ভরসা রেখে কমিয়ে ফেলুন ভুঁড়ি। শীতে চুটিয়ে খান ফুলকপি। ফুলকপিরও রয়েছে একই গুণ। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

লঙ্কা: অনেকেই ঝাল খান না। কিন্তু ফ্যাট কমাতে লঙ্কার ভূমিকা জানলে, পাতে রোজই নেবেন একটি করে লঙ্কা। ডায়েটেশিয়ান বিমোচন সরকারের মতে, লঙ্কা ক্যালোরি পুড়িয়ে দিতে সাহায্য করে। এ ছাড়াও শরীরে জমতে থাকা চর্বি অক্সিডাইজ করে। ফলে চর্বি জমে থাকতে পারে না। লঙ্কায় প্রচুর ভিটামিন সি থাকায় তা শরীরের অন্যান্য উপকারও করে। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

মাশরুম: মাশরুম পছন্দ করেন? তা হলে ভুঁড়ি কমানোর দাওয়াই আপনার হাতের মুঠোয়। মাশরুম রক্তে চিনির পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখে। এ ছাড়া এটি প্রোটিনে ঠাসা। শরীরের মেটাবলিজম বাড়িয়ে চর্বি জমা রোধ করতে পারে সহজেই। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

গাজর: কম ক্যালোরির খাবারের মধ্যে গাজর থাকবে প্রথম সারিতে। ফাইবারে ঠাসা গাজরের রস নিয়ম মেনে খেতে পারলে কমবেই ভুঁড়ি। ওজন নিয়ন্ত্রণে রেখে চেহারাকে অনেক তাড়তাড়ি সুন্দর ও উজ্জ্বল করতে পারে এই খাবার। রোজ স্যালাডেও রাখুন গাজর। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

কুমড়ো: বেশি ফাইবার আর কম ক্যালোরির খাবার হল কুমড়ো। ভুঁড়ি কমাতে রোজ ডায়েটে কুমড়ো রাখার উপদেশ দেন বিশেষজ্ঞরা। এ ছাড়া কুমড়োর অন্যতম বৈশিষ্ট্য, এটি ক্যানসার প্রতিরোধক। তাই রোজের খাবারে কুমড়ো রাখুন। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

শশা: গোটাটাই ফাইবার আর জলে ভর্তি। তাই ডিটক্সিফিকেশনের গুণ রয়েছে শশায়। ফাইবারের আধিক্য খিদেও কমায়। শরীরের ফ্যাট নিয়ন্ত্রণে মেনুতে রোজ রাখুন শশা। সঙ্গে যদি টক দই রাখতে রাখেন তা হলে আরও ভাল। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*