বিক্রির জন্য মাত্র ৬ দিন সময় পেলেন ব্যবসায়ীরা

কুরবানি ঈদের আগে ব্যবসা-বাণিজ্যের সুযোগ দিতে চলমান কঠোর বিধিনিষেধ শিথিল করেছে সরকার। ফলে আগামী ১৫ জুলাই থেকে দোকানপাট ও শপিংমল খোলা থাকবে। তবে সবাইকে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এ–সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

এতে বলা হয়েছে, ঈদ–পূর্ববর্তী ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনা, দেশের আর্থসামাজিক অবস্থা এবং অর্থনৈতিক কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে ১৪ জুলাই, অর্থাৎ কাল বুধবার মধ্যরাত থেকে ২৩ জুলাই সকাল ছয়টা পর্যন্ত সব ধরনের বিধিনিষেধ শিথিল করা হলো। এ সময় জনগণকে সতর্ক অবস্থায় থাকতে হবে।

মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে অনুসরণ করতে হবে। করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণে গত ২৮ জুন থেকে সীমিত আকারে বিধিনিষেধ শুরু হয়। সেদিন থেকেই সারা দেশের দোকানপাট ও শপিংমল বন্ধ রয়েছে। পরে ১ জুলাই থেকে কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হয়, যা এখনও চলমান।

তবে ঈদের পর ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত আবার কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হবে। সে সময়ও দোকানপাট, বিপণিবিতান বন্ধ থাকবে। এর মানে চলতি মাসের মধ্যে মাত্র আট দিন ব্যবসা করার সুযোগ পাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। এর মধ্যে ২১ জুলাই ঈদ। সাধারণ ঈদের পর কয়েক দিন বেচাকেনা থাকে না। সেই হিসেবে ব্যবসার জন্য মাত্র ছয় দিন পাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা।