৯ বছরের শিশুকে দেওয়া হলো মাছ চুরির অপবাদ, অতঃপর…

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে মাছ চুরির অপবাদে জুয়েল রানা (৯) নামে তৃতীয় শ্রেণিপড়ুয়া এক শিশুকে রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে পুকুর মালিক রমজান আলী বাসু মিয়ার বিরুদ্ধে। গেল শুক্রবার সকালে পীরগঞ্জ দৌলতপুর ইউনিয়নের মলিকপুর তামলাই দিঘি পাড় জহিরুল ইসলামের বাড়ির পাশে ঘটনাটি ঘটে। নির্যাতিত শিশু জুয়েল রানা দৌলতপুর ইউনিয়নের মলিকপুর সরকার পাড়া গ্রামের মনির উদ্দিনের ছেলে। সে পূর্ব মলিকপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। বর্তমানে জুয়েল পীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

জুয়েল রানার বাবা মনিরউদ্দিন ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাছ চুরির অপবাদে জুয়েলকে পুকুর পাড়ের পাশে একটি গাছের সাথে রশি দিয়ে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় মারধর করেন একই গ্রামের রমজান আলী ওরফে বাসু মিয়া। এই নির্যাতনের ছবি ধারণ করে প্রত্যক্ষদর্শী বেশ কয়েকজন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেন। শনিবার জুয়েল অসুস্থ হয়ে পড়লে বাড়ির লোকজন তাকে স্থানীয় পীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

রবিবার রাতে জুয়ের বাবা পীরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ রাতেই অভিযুক্ত রমজান আলী ওরফে বাসু মিয়াকে গ্রেপ্তার করে। ভুক্তভোগী শিশু জুয়েল রানার বাবা মনির উদ্দিন ও মা মাজেদা বেগম তাদের সন্তানের নির্যাতনকারীর বিচার ও শাস্তি দাবি করেছেন। অভিযুক্ত রমজান ওরফে বাসু মিয়া বলেন, হাসি তামাশা করে জুয়েলকে বেঁধে দুটা বাড়ি দিয়েছি, নির্যাতন করিনি।

এ বিষয়ে পীরগঞ্জ থানার ওসি প্রদীপ কুমার রায় ঘটনার সত্যতা স্বিকার করেছেন। তিনি বলেন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ বিষয়ে আরো তদন্ত চলছে, দোষিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে