বোমা আতঙ্কে আর্জেন্টিনা ছাড়তে পারেননি মেসি!

কোপা আমেরিকা শিরোপা জয়ের পর মঙ্গলবার দেশ ছাড়ার কথা ছিল লিওনেল মেসির। স্পেনে যাওয়ার উদ্দেশে প্রস্তুতিও নিয়েছিলেন তিনি। দেশটির ফিশারটন বিমানবন্দর থেকে উড়ে সোজা স্পেনে আসার কথা ছিল তার। কিন্তু বিমানবন্দরে হঠাৎ করে বোমা আতঙ্কের খবর ছড়াল। যে কারণে দেশ ছাড়ার পরিকল্পনা বাতিল করলেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক।

আর্জেন্টিনার জনপ্রিয় ক্রীড়া দৈনিক টিওয়াইসি স্পোর্টস এ তথ্য দিয়েছে। এদিকে স্প্যানিশ গণমাধ্যমগুলোর খবর, মেসির অপেক্ষায় আছে বার্সেলোনা। তিনি কাতালানে ফিরলেই নতুন চুক্তিতে সই করবেন তারা। দুই মৌসুমের জন্য মেসি বার্সেলোনায় থাকার চুক্তি করবে। যদিও খবরের সত্যতা দিতে পারেনি কেউ।

এদিকে বার্সার সঙ্গে যতদিন চুক্তি হবে না মেসির, ততোদিন ধরে তার প্রতিদিন ১০ লাখ টাকা করে ক্ষতি হবে বলে জানিয়েছে একটি সূত্র। স্প্যানিশ দৈনিক এল মুন্দোর বরাতে ইউরোপের ক্রীড়াভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মার্কা জানিয়েছে, বার্সার সঙ্গে কোনো চুক্তি না হওয়ার কারণে প্রতিদিন ১০ হাজার ইউরো করে হারাচ্ছেন মেসি। অর্থাৎ যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ১০ লাখ পাঁচ হাজার টাকা!

বিষয়টি মাথায় রেখে যতদ্রুত সম্ভব চুক্তি বিষয়ক আলোচনার দরকার বলে মনে করেন মেসি। তাছাড়া সপ্তম ব্যালন ডি’অর জয়ের স্বপ্ন তো আছেই। সেটা জয়ের দৌড়েও এগিয়েও আছেন তিনি। এবারের কোপা আমেরিকায় টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ গোল, সর্বোচ্চ অ্যাসিস্ট ও সেরা খেলোয়াড়ের স্বীকৃতির সঙ্গে শিরোপাও পেয়েছেন।

বর্ষসেরার লড়াইয়ে তাই ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, কিলিয়ান এমবাপ্পে ও নেইমারের মতো বড় তারকারা তাকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মতো অবস্থানে নেই। তাদের কেউই এ বছর ক্লাব ও দেশের হয়ে বড় কোনো শিরোপা জিততে পারেননি। লা লিগায় সর্বোচ্চ গোল ও অ্যাসিস্ট তার।

সব মিলিয়ে এ বছর ক্লাব ও দেশের হয়ে ৪৭ ম্যাচে ৩৮ গোল করার পাশাপাশি ১৪টি গোল বানিয়ে দিয়েছেন মেসি। ২৬ বার হয়েছেন ম্যাচসেরা। এমন পারফরম্যান্সের পর ফের ব্যালন ডি’অর আশা করতেই পারেন মেসি। তাই আলবিসেলেস্তেদের মায়া ত্যাগ করে শিগগিরই কাতালানের উদ্দেশে রওনা করা জরুরি।

তাছাড়া বার্সা সভাপতি হুয়ান লাপোর্তা বলেছিলেন, কোপা শেষে কাতালানে ফিরলেই মেসির সঙ্গে নতুন চুক্তিতে যাবেন তারা। মেসির অপেক্ষায় আছেন তারা। গত মাসে বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ শেষে লিওনেল মেসি এখন ক্লাবহীন। ফ্রি এজেন্ট হিসাবে যে কোনো ক্লাবে যোগ দিতে পারেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। কিন্তু বোমা আতঙ্কে এখন ইউরোপেই যাওয়া পিছিয়ে গেল তার।

তথ্যসূত্র: এফ সি বার্সেলোনা