ম্যারাডোনা স্টেডিয়ামে ‘সুপার কাপে’ মুখোমুখি ইতালি-আর্জেন্টিনা

ইতিমধ্যে নিজের মহাদেশে শিরোপার খেতাব অর্জন করে নিয়েছে ইতালি এবং আর্জেন্টিনা। এবার তারা একে অপরের বিরুদ্ধে মাঠে নামতে পারে। ‘সুপার কাপে’ মহাদেশীয় সেরাদের লড়াইয়ে লিওনেল মেসির নেতৃত্বাধীন লা আলবিসেলেস্তের মুখোমুখি হতে পারে জর্জিও চিয়েলিনির আজুরিরা।

এদিকে নিউইয়র্ক টাইমসের তারিখ পাঞ্জার মতে দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল নিয়ামক সংস্থা কনমেবল এবং উয়েফার মধ্যে এই নিয়ে বেশ কিছু সময় কথাবার্তা চলার পর এখন প্রায় সিদ্ধান্ত পাকা হওয়ার পথে। আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি দিয়েগো মারাদোনার কর্মক্ষেত্র নেপলস এই ঐতিহাসিক লড়াইয়ের সাক্ষী থাকতে পারে।

আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপ জেতার পাশপাশি নাপোলির হয়ে ইতিহাস রচনা করে দলকে সিরি এ জেতানোর জন্য আজও বন্দর শহরে কার্যত পূজিত হন মারাদোনা। সেই কারণেই দুই দলের ম্যাচ ইতালির এই শহরে করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলে শোনা গেছে। তবে মহাদেশীয় সেরাদের মধ্যেকার ম্যাচের পরিকল্পনা নতুন তো নয়ই,

বরং বেশ পুরনো। বহু বছর ধরে পৃথিবীর নানা মহাদেশের খেতাব জয়ী দলগুলি কনফেডারেশন কাপে একে অপরের মুখোমুখি হত। গত ২০১৭ সালেও এমনটা দেখা গেছে। সেইবার জার্মানি কনফেডারেশন কাপের খেতাব জিতে নেয়। তবে এরপরেই টুর্নামেন্টটি আর আয়োজন না করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সেই টুর্নামেন্ট চালু না হলেও সুপার কাপের মতো একটি ম্যাচে দুই সবচেয়ে শক্তিশালী ফুটবল মহাদেশের সেরা দুই দল একে অপরের মুখোমুখি হতে পারে। তবে ফুটবলের ব্যস্ত সূচির জন্য ও করোনার কথা মাথায় রেখে এখনই সেই ম্যাচ করা সম্ভব নয়। সম্ভবত ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের আগে কোন সময়েই এই ম্যাচ আয়োজিত হতে পারে।