‘অ’স্ত্র’ ‘মা’ম’লা’য়’ স্বামীসহ পাপিয়ার ২৭ বছরের ‘কা’রা’দ’ণ্ড’

নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের ‘ব’হি”ষ্কৃ’ত’ সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়া ওরফে পিউ দ’ম্পতির ‘বি”রু’দ্ধে’ ‘অ’স্ত্র’ আ’ইনে করা ‘মা’ম”লা’য়’ ২৭ বছরের ‘কা’রা’দ’ণ্ডে’র’ আ’দেশ দিয়ে’ছেন আদা’লত। এর মধ্যে ‘অ’স্ত্র’ আ’ই’নে ২০ বছর এবং ‘গু’লি’ ‘উ’দ্ধা’রে’র ঘটনায় আরও ৭ বছরের ‘কা’রা’দ’ণ্ড দেয়া হয়।

সোমবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকার ১ নম্বর স্পেশাল ‘ট্রা’ই’ব্যু’না’লে’র’ বিচা’রক কেএম ইমরুল কায়েশ এ রা’য় ঘো’ষণা করেন। এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর একই ‘আ’দা’ল’ত’ রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমকে ‘অ’স্ত্র’ ‘মা’ম’লা’য়’ ‘যা’ব’জ্জী’ব’ন’ ‘কা’রা’দ’ণ্ডা’দে’শ দেন আ’দা’ল’ত’।

দেশব্যাপী ‘ক্যা’সি’নো’বি’রো’ধী’ অভি’যা’নের সময় গত ২২ ফেব্রুয়ারি হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের দুই ন’ম্বর বহির্গমন টার্মিনালের ছয় নম্বর স্টাফ গেটের সামনে থেকে পাপিয়া ‘দ’ম্প”তি’কে আ’ট’ক করা হয়।

দেহ ‘ত’ল্লা’শি’ করে পাপিয়ার কাছ থেকে একাধিক পাসপোর্ট, নগদ অর্থ, ‘জা’ল’ নোট; পাপিয়ার স্বামী মফিজুর রহমানের কাছ থেকে একাধিক পাসপোর্ট, নগদ অ’র্থ ও বি’দেশি অ’র্থ; সহযোগী ‘আ”সা’মি’ সাব্বির খন্দকারের কাছ থেকে একাধিক পাসপোর্ট, নগদ অ’র্থ, ‘জা’ল’ ‘নো’ট’; শেখ তাইবা নূরের কাছ থেকে একটি পাসপোর্ট, ন’গদ অ’র্থ ও দুটি ডেবিট কা’র্ড ‘উ”দ্ধা’র’ করে আই’ন’শৃঙ্খ’লা বা’হি’নী’।

জিজ্ঞাসাবাদে পাপিয়া দ’ম্পতির দেওয়া তথ্যানুসারে নি’র্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে ফার্মগেট ইন্দিরা রোডের বাসায় ২৩ ফেব্রুয়ারি ভোরে ‘অ’ভি’যা’ন’ পরিচালনা করা হয়। সেখান থেকে ‘অ’স্ত্র’, বিদেশি ‘ম’দ’, নগদ অ’র্থ ও ভারতীয় রু’পি ‘উ’দ্ধা’র’ করা হয়।

এ ঘটনায় শেরেবাংলা নগর ‘থা’না’য়’ ‘অ’স্ত্র’ এবং বিশেষ ক্ষ’মতা আ’ই’নের একটি করে দুটি ও বিমানবন্দর থা’নায় বিশেষ ক্ষমতা আ’ই’নে একটি ‘মা’ম’লা’ করে আই’ন’শৃ’ঙ্খ’লা বা’হিনী।

এছাড়া ‘অ’বৈ’ধ’ পাঁচ কোটি টাকার খোঁজ পেয়ে তাদের ‘বি’রু’দ্ধে’ মানি ‘ল’ন্ডা’রিং’ ‘আ’ই’নে’ আরেকটি ‘মা’ম’লা’ করে পু’লি’শে’র ‘অ’প’রা’ধ’ ‘ত’দ’ন্ত ‘বিভাগ (সিআইডি)। গত ২৯ জুন মামলার ত’দন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর উপ-পরিদর্শক (এসআই) আরিফুজ্জামান ঢাকার চিফ মেট্রো’পলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদা’লতে এ চা’র্জ’শি’ট জমা দেন।

ঢাকার ১ নম্বর স্পেশাল ট্রাই’ব্যুনালের বিচারক ১৮ আগস্ট আদা’লত দুই ‘আ’সা’মি’র’ ‘বি’রু’দ্ধে’ চার্জ’শিট’ গ্রহণ করেন।

গত ২৩ আগস্ট একই ‘আ’দা’ল’ত’ ‘আ’সা’মি’দে’র’ অব্যা’হতির আবেদন নাকচ করে চা’র্জ গঠনের আ’দেশ দেন। ৭ সেপ্টেম্বর ‘মা’ম’লা”টি’তে’ সাক্ষ্য’গ্রহণ শেষ হয়। ছয় কার্য’দিবসে মোট ১৪ সা’ক্ষীর মধ্যে ১২ জনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়। ৯ সেপ্টেম্বর ‘আ’ত্ম’প’ক্ষ’ ‘শু’না’নি’তে ‘আ’সা’মি’রা নিজেদের ‘নি’র্দো’ষ’ দাবি করে ন্যায় ‘বি’চা’র’ প্রার্থনা করেন।

২৪ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্রপক্ষ ‘যু’ক্তি’ত’র্ক’ উপস্থাপনের আসা’মি’দের সর্বোচ্চ ‘সা’জা’ ‘যা’ব’জ্জী’ব’ন’ ‘কা’রা’দ’ণ্ড’ দাবি করেন। ওইদিন ‘আ’সা’মি’প’ক্ষে’র’ আই’নজী’বীরা ‘যু’ক্তি’ত’র্ক’ উপ’স্থাপন শুরু করেন। ২৭ সেপ্টেম্বর ‘আ’সা’মি’প”ক্ষে’র’ ‘যু’ক্তি’ত’র্ক’ শেষে ‘আদা’ল”ত’ ‘রা’য়ে’র’ জন্য ১২ অক্টোবর দিন ধা’র্য করেন। বর্তমানে পাপিয়া দম্পতি ‘কা’রা’গা’রে’ রয়েছেন।