ফাইনালে হার, আক্ষেপ মেটাতে ইতালিয়ানদের পেটালেন ইংল্যান্ড সমর্থকরা

লন্ডনের বিখ্যাত ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ৬০ হাজার দর্শকের সামনে ইতালির কাছে টাইব্রেকারে হেরে ইউরো জয়ের স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছে ইংল্যান্ডের। টাইব্রেকারে ইতালির কাছে ৩-২ গোলে হারার রাতে ইংল্যান্ডের সমর্থকরা নিজেদের পরাজয়কে মেনে নিতে পারেননি। হারের আক্ষেপ মেটাতে ঘটিয়েছেন নিকৃষ্ট ঘটনা। ম্যাচ শেষে দল বেঁধে হামলা চালিয়েছেন ইতালির সমর্থকদের উপর।

রোববার (১১ জুলাই) সারাদিন ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়ে বিশ্ব দরবারে সমালোচনার শিকার হতে হয়েছে ইংল্যান্ডকে। ম্যাচের আগে মাঠের বাইরে সহিংসতায় জড়ান ইংল্যান্ডের সমর্থকরা। টিকিট না থাকার পরেও স্বাগতিক দর্শকরা কাতারে কাতারে ওয়েম্বলির বাইরে জড়ো হয়ে জোরপূর্বক স্টেডিয়ামে ঢোকার চেষ্টা করেন।

পরে বাধাপ্রাপ্ত হলে বিয়ারের বোতল ছুড়ে মারেন। ফাইনাল ম্যাচের আগে মদ্যপ অবস্থায় স্টেডিয়ামের বাইরে বাসে তাণ্ডব চালায় অনেক সমর্থক। এমন কি ইতালি থেকে ফাইনাল খেলা দেখতে আসা সমর্থকদের উপরেও চড়াও হন বেশকিছু উগ্র সমর্থক। এদিকে ম্যাচ শেষে টাইব্রেকারে হেরে আরও বেড়ে যায় উত্তেজনা।

আর এতেই ঘটে বিপত্তী, ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামের বাইরের ফটকে ইতালি সমর্থকদের পিটিয়ে নিজেদের যন্ত্রণা ঘোচানোর চেষ্টায় ব্রিটিশরা। সভ্য জাতি বলে বরাবরাই নাম ডাক আছে ব্রিটিশদের তবে সামান্য এদিক ওদিকে হলেই নিজেদের পশুত্ব দেখাতে মোটেও বিলম্ব করে না এরা। এবার তারই প্রমাণ পাওয়া গেল ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে।

সেমিফাইনালে ডেনমার্কের বিপক্ষেও নক্কারজনক কাণ্ড ঘটিইয়েছিলেন ইংলিশ সমর্থকরা। ড্যানিশ গোলকিপার ক্যাসপার স্কিমিচেলের মুখে লেজার বিম ফেলে মনোসংযোগে বিঘ্ন ঘটাতে চেষ্টা করে তারা। ডেনমার্কের জাতীয় সঙ্গীতকেও ব্যঙ্গ করা হয়। গ্যালারিতে আতশবাজি জ্বালানো হয়। এজন্য উয়েফার পক্ষ থেকে জরিমানা করা হয় ইংল্যান্ডকে।