তুরস্কের সহায়তায় নির্মিত ঘানার জাতীয় মসজিদ উদ্বোধন

ঘানায় তুরস্কের সহায়তায় নির্মিত জাতীয় মসজিদ উদ্বোধন হয়েছে। গতকাল শুক্রবার (১৬ জুলাই) রাজধানীয় আক্রায় ঘানা ও তুরস্কের সরকারি কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ঘানার মিল্লাত মসজিদ কমপ্লেক্স উদ্বোধন কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। মসজিদটি তুরস্কের বিখ্যাত সুলতান মেহমেদ মসজিদের স্থাপত্যশৈলী অনুকরণে তৈরি করা হয়। ৪০ হাজার বর্গমিটারের মসজিদে প্রায় পাঁচ হাজার মুসল্লি একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে পারবেন।

তুরস্ক সরকারের অর্থায়নে ১০ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে তা তৈরি করা হয়। আক্রায় নির্মিত মসজিদটি আফ্রিকার বৃহত্তম মসজিদ বলে মনে করা হয়। মসজিদের সঙ্গে গবেষণা কেন্দ্র, স্কুল, ক্লিনিক, সম্মেলন কক্ষ ও ঘানার জাতীয় ইমাম ওসমানু নুহু শারুবুতুর অফিস আছে।

ঘানার প্রেসিডেন্ট নানা আকুফো-আদ্দো বলেন, ঘানার মিল্লাত মসজিদ কমপ্লেক্সটি শুধুমাত্র রাজধানী আক্রার প্রাকৃতিক দৃশ্যের সৌন্দর্য বৃদ্ধ করবে না, বরং পশ্চিম আফ্রিকার খ্রিস্টানদের ধর্মীয় সম্প্রীতির প্রকাশ ঘটায়।nউদ্বোধনীয় অনুষ্ঠানে ইরবাশ বলেন, ইসলাম মানুষের শান্তি,

নিরাপত্তা ও উৎকর্ষতা নিশ্চিত করে। আর এ মহান লক্ষ্য বাস্তবায়নে সার্বজনীন মূলনীতি প্রণয়ন করেছে। অনেক শতাব্দি যাবত আফ্রিকায় ধর্ম, বর্ণ ও ভাষার সব ধরনের লোকের শান্তিপূর্ণ বসবাস রয়েছে। এখানের সাংস্কৃতিক ও শৈল্পিক ঐতিহ্য অনেক সমৃদ্ধ।

তুরস্কের ধর্ম বিভাগ, ওয়াকফ বিভাগ ও দানবীরদের আর্থিক সহায়তায় বিশ্বের নানা স্থানে অনেক মসজিদ নির্মাণ করা হয়েছে। ঘানার এই মসজিদও তুরস্কের সহায়তায় নির্মাণ করা হয়েছে। এসময় ঘানার ভাইস প্রেসিডেন্ট নানা আকুফো-আদ্দো,

ভাইস প্রেসিডেন্ট মাহামুদু বাউমিয়া ও তুরস্কের ধর্ম বিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা ড. আলি ইরবাশ মসজিদটি উদ্বোধন করেন। এ সময় উভয় দেশের গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ব্যক্তিবর্গরাও উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: আনাদোলু এজেন্সি