পাকিস্তানে সব স্কুলে কোরআন শিক্ষা বাধ্যতামূলক

কুরআন মজিদ অথবা কুরআ-ন মাজী-দ বা কোরআন ইসলাম ধর্মের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ, যা আল্লাহর বাণী বলে মুসলমানরা বিশ্বাস করে থাকেন। এটিকে আরবি শাস্ত্রীয় সাহিত্যের সর্বোৎকৃষ্ট রচনা বলে মনে করা হয়।
পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের সরকারি ও বেসরকারি সব স্কুলে পবিত্র কোরআন শিক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। প্রাথমিক স্তরের প্রথম শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত তা বাধ্যতামূলক করা হয়।

এক বিবৃতিতে পাঞ্জাব পাঠ্যক্রম এবং পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (পিসিটিবি) জানায়, পাঞ্জাব সরকার বাধ্যতামূলক কোরআন শিক্ষা আইন-২০১৮ অনুসারে প্রদেশের প্রাথমিক স্তরের সব মুসলিম শিক্ষার্থীদের জন্য পবিত্র কোরআন শিক্ষা বাধ্যতামূলক করেছে। মাদরাসাসহ সব সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এ নির্দেশনা বাস্তবায়ন করা হবে।

পিসিটিবির ৮৩তম বোর্ডসভায় পাঠপরিকল্পনা পুনঃ নিরীক্ষণ করা হয় এবং প্রাথমিক স্তরে নাজেরা কোরআন পাঠ আলাদা আবশ্যিক বিষয় হিসেবে নির্ধারণ করেছে। আবশ্যিক এ বিষয়ের জন্য সপ্তাহে তিন থেকে চারটি ক্লাস অনুষ্ঠিত হবে। তা ছাড়া বার্ষিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার জন্য ৫০ নাম্বার নির্ধারণ করা হয়।

সূত্র: জিও টিভি নিউজ।