ফ্রি ফায়ার গেমে হেরে আত্মহত্যা করল যুবক

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ওই দুটি গেম কিশোর-কিশোরী ও তরুণদের মধ্যে আসক্তি তৈরি করেছে। হঠাৎ করে বন্ধ করতে গেলে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করবে। তাই ধীরে সুস্থে বিকল্প পদ্ধতিতে গেম দুটি বন্ধের উদ্যোগ নেয়া হবে।

নতুন খবর হচ্ছে, দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে বন্ধুদের সঙ্গে ফ্রি ফায়ার গেমে হেরে গিয়ে মিঠু (২১) নামের এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। রবিবার (১৮ জুলাই) ভোরে উপজেলার নশরতপুর ইউনিয়নের বালাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

মিঠু ওই গ্রামের মোশারফ হোসেনের ছেলে। তিনি মায়ের সঙ্গে বাড়িতে একাই থাকতেন। আর একটি দোকানে শ্রমিকের কাজ করতেন। স্থানীয়রা জানান, মিঠু দীর্ঘদিন ধরেই ফ্রি ফায়ার গেমে আসক্ত। প্রায় সময় বন্ধুদের সঙ্গে বাজি ধরে এই গেম খেলতেন। গেমে হেরে গেলে তার মন খুব খারাপ থাকতো।

এরই জের ধরে রবিবার ভোরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে নিজ ঘরে আত্মহত্যা করেন। খবর পেয়ে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মিঠুর মা বলেন, ‘অনেক দিন ধরে আমার ছেলে মোবাইলে কী যেন খেলে। বাড়িতে গভীর রাত পর্যন্ত মোবাইল টিপাটিপি করতো। অনেকবার বাধা দেওয়ার পরও কথা শোনেনি। আইজ মোবাইলটায় মোর বেটাক মারি ফালাইলো।’