ওটা করতে গিয়ে অভিনয়ে ফেরার কথা ভাবতে পারি না

অসুস্থ মাকে দেখতে সুদূর আমেরিকা থেকে ৯ অক্টোবর দেশে এসেছেন এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। বর্তমানে নানার বাড়ি বগুড়ায় মায়ের সঙ্গেই আছেন তিনি। সেখানকার শিববাটির প্রিয়াঙ্গনে যুগান্তরের সঙ্গে কথা হয় এ অভিনেত্রীর। তার চুম্বক অংশ পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল।

* আমেরিকা থেকে নিশ্চয়ই মন খারাপ করে এসেছেন?
ঠিক তাই। রাতে ঢাকায় নেমেই আম্মাকে দেখতে সরাসরি বগুড়া চলে এসেছি। তিনি খুব অসুস্থ। চোখের সামনে আম্মার এ কষ্ট সহ্য করতে পারছি না।

অনেক কষ্ট হচ্ছে। আল্লাহর কাছে বারবার দোয়া করছি, তিনি যেন আম্মার কষ্টটি কমিয়ে দেন। আমার আম্মা আমার জীবনে দেখা অন্যতম ভালো একজন মানুষ; ভালো মনের মানুষ। তার এভাবে হাসপাতালে কষ্টে থাকাটা আমি মেনে নিতে পারছি না। সবাই আমার আম্মার জন্য দোয়া করবেন।

* এক সময় অভিনয় করতেন, এখন অভিনয় থেকে অনেক দূরে। সহকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ হয়?
হয়, তবে খুব বেশিজনের সঙ্গে নয়। এখন তো সোশ্যাল মিডিয়ার যুগ। সরাসরি কথা বলার চেয়ে ফেসবুকেই যোগাযোগটি বেশি হয়। তাই বগুড়ায় আসার আগে থেকেই অনেকেই জানত, আমি আসব। আসার পর তাদের সঙ্গে যোগাযোগ হচ্ছে।

* অভিনয়ে ফিরতে ইচ্ছা করে না?
মাঝে মাঝে ইচ্ছা করে। আবার মাঝে মাঝে ইচ্ছা করে না। কারণ আমার ওপর এখন অনেক দায়িত্ব। এ দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অভিনয়ে ফেরার কথা ভাবতে পারি না। হয়তো এটাই নিয়তি।

* তবে কি আর অভিনয়ে ফেরা হবে না?
সেটিও আসলে নিশ্চিত নয়। এটি সময়ের ওপর নির্ভর করে। কখনও যদি স্ক্রিপ্ট এবং চরিত্র ভালো লেগে যায় হয়তো অভিনয় করতেও পারি। সেটি দেশের মাটিতেও হতে পারে আবার বিদেশের মাটিতেও হতে পারে।

* আমেরিকায় আপাতত কীভাবে সময় কাটছে?
সেখানে আমি মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট বিষয়ে পড়াশোনা করছি। এছাড়া আমার দু’সন্তান নিয়ে ব্যস্ত সময় কেটে যায়। তাদের মানুষ করাই এখন আমার গুরু দায়িত্ব।

* আপনার দু’কন্যাকে নিয়ে স্বপ্ন কী?
ওরা মানুষের মতো মানুষ হোক- এটিই স্বপ্ন। ওদের জন্যই তো এখন নিজের জীবনটা উৎসর্গ করছি। ওরা ভালো থাকলেই আমি ভালো থাকব। নিশ্চয়ই সৃষ্টিকর্তাও ওদের ভালো রাখবেন।