‘চাকরিজীবী লীগ’ করে আ.লীগের পদ হারালেন হেলেনা জাহাঙ্গীর

আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য এবং কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পদ থেকে বহিষ্কার হচ্ছেন আলোচিত ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীর। বিভিন্ন বিতর্কিত মন্তব্য ও কর্মকাণ্ডের কারণে তাকে বাদ দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা।

আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপকমিটি থেকে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে বাদ দেওয়ার বিষয়টি গণামাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন দলটির মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি। তিনি বলেছেন, বির্তকিত কমর্কাণ্ডের কারণে মহিলাবিষয়ক উপকমিটি থেকে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে বহিষ্কারের নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। দপ্তর সম্পাদককে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় কাগজ তৈরি করতে নিদের্শনা দেওয়া হয়েছে। যে কোনো সময়েই বহিষ্কারের চিঠি যাবে।

কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পদ থেকেও হেলেনা জাহাঙ্গীরকে বাদ দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মু. রুহুল আমিন। জানতে চাইলে তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি দিয়ে একটি চিঠি গত মাসে আমাদের দপ্তর সম্পাদক পাঠিয়ে দিয়েছে।’

ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীর সম্প্রতি ‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামের একটি সংগঠন করেন। এতে নিজেকে সভাপতি এবং মাহবুব মনিরকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেন। গত দুইদিন ধরে এই সংগঠনে জেলা-উপজেলা ও বিদেশ শাখায় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক মনোনয়ন দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে

একটি পোস্টার প্রকাশ করা হয়। এ ঘটনার পর ফেসবুকে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সঙ্গে তোলা হেলেনা জাহাঙ্গীরের ছবি ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে অনেকেই তার রাজনৈতিক আদর্শ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।