চোটাক্রান্ত বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া : একাধিক তারকাহীন লড়াই

অস্ট্রেলিয়ার সাথে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক ফলাফল মুটেও ভালনা তবে খেলার মাঠে নিজেদের সেরটা দিবে এটাইতো স্বাভাবিক। নতুন খবর হচ্ছে, দীর্ঘ প্রায় চার বছর পরে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া। অজিরা পূর্ণ শক্তি ছাড়ায় সফরে বের হয়েছিল, সিরিজ শুরুর আগে একই পরিণতি হয়েছে বাংলাদেশের। এই সিরিজে দেখা যাবে না দুই দেশের একাধিক তারকা।

চোটাক্রান্ত বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া : একাধিক তারকাহীন লড়াই
অস্ট্রেলিয়া দল

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বাংলাদেশ সফর থেকে আগেই সরে দাঁড়িয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, স্টিভ স্মিথ, প্যাট কামিন্সরা। অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটাররা না আসলেও অস্ট্রেলিয়া দলে তারকা ক্রিকেটারের অভাব নেই, তবে আছে অভিজ্ঞতার অভাব।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের মাঝপথে চোট পান অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চও। চোটের কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ ও বাংলাদেশ সফর থেকেই ছিটকে গিয়েছেন তিনি। ফলে নিয়মিত অধিনায়ককে ছাড়াই খেলতে হবে অস্ট্রেলিয়াকে।

ফিঞ্চ দেশে ফিরে যাওয়ায় উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে জায়গা পান তরুণ ক্রিকেটার বেন ম্যাকডারমট। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে তিনিও চোট পান। ফলে তৃতীয় ম্যাচে খেলতে পারেননি। মাত্র ৪টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচে ওপেন করা ময়জেস হেনরিকসকেই তাই ইনিংস উদ্বোধন করতে নামিয়ে দিতে বাধ্য হয় অস্ট্রেলিয়া।

ব্যাটিং নিয়ে অস্ট্রেলিয়া কিছুটা দুশ্চিন্তায় থাকলেও তাদের বোলিং বিভাগ কিন্তু পূর্ণ শক্তির। সেখানে আছেন অভিজ্ঞ ও নিয়মিত মুখ মিচেল মার্শ, জশ হ্যাজলউড, অ্যাডাম জাম্পা ও অ্যাস্টন এগার। তাই এই অস্ট্রেলিয়া স্কোয়াডকেও দুর্বল বলার সুযোগ নেই। অপরদিকে, চোট ও ক্রিকেটারদের পারিবারিক কারণে বাংলাদেশ স্কোয়াড থেকেও ছিটকে গিয়েছেন একাধিক তারকা ক্রিকেটার। ফলে বাংলাদেশ যে পূর্ণশক্তির দল নিয়ে খেলতে পারছে না সেটা সম্পূর্ণ নিশ্চিত।

চোটাক্রান্ত বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া : একাধিক তারকাহীন লড়াই
বাংলাদেশ

বাবা-মায়ের অসুস্থতার কারণে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে ছিলেন না মুশফিকুর রহিম। কোয়ারেন্টিন নিয়ম মানতে না পারায় থাকতে পারবেন না অস্ট্রেলিয়া সিরিজেও। একই অবস্থা লিটন দাসেরও। শ্বশুর অসুস্থ হওয়ায় জৈব সুরক্ষা বলয় ছেড়ে বের হয়ে আর অস্ট্রেলিয়া সিরিজে খেলা হচ্ছে না তার।

তামিম ইকবাল নেই চোটের কারণে। মুস্তাফিজুর রহমানও চোটের কারণে প্রথম ১/২টি ম্যাচ খেলতে পারবেন না। সাকিব আল হাসান ও সৌম্য সরকারের আছে হালকা ব্যথা। তবে আশা করা হচ্ছে, তারা ম্যাচের আগেই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে যাবেন।