হঠাৎ পদত্যাগের পর কর্নাটকের চারবারের মুখ্যমন্ত্রীর আবেগঘন বক্তব্য

ভারতের কর্নাটক রাজ্যের চারবারের মুখ্যমন্ত্রী প্রবীণ বিজেপি নেতা বি এস ইয়েদুরাপ্পা পদত্যাগ করেছেন। রাজ্য গভর্নর থাওয়ার চাঁদ গেহলটের কাছে সোমবার পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন তিনি। বিজেপি ক্ষমতায় থাকলে এই দলেরই একজন প্রবীন নেতার হঠাৎ এই পদত্যাগে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে গোটা ভারতবর্ষে।

পদত্যাগপত্র দেওয়ার পর প্রশ্ন করা হয়েছিল, গভর্নরের দায়িত্ব দেওয়া হলে তিনি তা পালন করবেন কি না? এর জবাবে ইয়েদুরাপ্পা বলেন, ‘এই রাজ্য ছেড়ে যাওয়ার কোনো প্রশ্ন নেই। কর্ণাটকের জনগণের কল্যাণে আমি কাজ করব।’ পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে এক আবেগঘন বক্তব্য দিয়েছেন ইয়েদুরাপ্পা।

তিনি বলেন, ‘বিজেপি নেতা অটল বিহারি বাজপেয়ি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর আমাকে কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রী করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু আমি বলেছিলাম, আমি কর্নাটকেই থাকব। এখন কর্নাটকে বিজেপি বড় হয়েছে। এটা সব সময় আমার জন্য অগ্নিপরীক্ষা ছিল।’

ভারতের জনপ্রিয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) প্রবীণ নেতা বি এস ইয়েদুরাপ্পা। এইচ ডি কুমারাস্বামীর নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের পতনের পর ২০১৯ সালে তিনি মুখ্যমন্ত্রী হন।

এ নিয়ে চারবার মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু কর্ণাটকের এই মুখ্যমন্ত্রী কখনোই মেয়াদ পূরণ করতে পারেননি। ২০০৮ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত তিনি মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। পরে তাকে কারাগারে যেতে হয়।

এবার মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই দলের একটি অংশের বিরোধিতার মুখে পড়েন ইয়েদুরাপ্পা। ওই অংশটি তাকে মুখ্যমন্ত্রী পদে চাইছিল না। এ নিয়ে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছিল। ইয়েদুরাপ্পার পদত্যাগের মধ্য দিয়ে সেই অচলাবস্থার অবসান ঘটল