পর্ন বানানোর অভিযোগে গ্রেফতার মডেল

ভারতজুড়েই আলোচনায় বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামীর রাজ কুন্দ্রার পর্নকাণ্ড। সেই আঁচ পড়েছে এবার ওপার বাংলার কলকাতাতেও। তবে এবার পর্নকাণ্ডে নাম উঠে এসেছে কলকাতার এক মডেল তরুণীর। পর্ন র‍্যাকেট চালানোর অভিযোগে বুধবার গ্রেফতার করা হয় নন্দিতা দত্তকে। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যান্য ব্যক্তিদেরও খুঁজছে পুলিশ। খবর-আনন্দবাজার।

আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়, মহানগরীর বুকে রমরমিয়ে চলছে পর্নোগ্রাফি তৈরির ব্যবসা। নিউটাউন থানার পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাস্থল স্থানীয় প্রাইড হোটেল। অভিযোগ পাওয়ার তিন দিনের মাথায় বুধবার গ্রেফতার করা হয় পর্ন নায়িকা নন্দিতা দত্ত, তাঁর সঙ্গী মৈনাক ঘোষ এবং হোটেল কর্তৃপক্ষকে। তাঁদের সঙ্গে রাজ কুন্দ্রার পর্ন-কাণ্ডের যোগ রয়েছে কি না খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বৃহস্পতিবারই তাঁদের বারাসত আদালতে হাজির করানো হয়। চার দিনের পুলিশ হেফাজত হয়েছে তাঁদের।

নিউটাউন থানা সূত্রে খবর, শুধু নন্দিতা এবং মৈনাক নন,পর্ন-কাণ্ডে জড়িত আরও অনেকে। তল্লাশি এবং জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে একে একে উঠে আসবে এই কাণ্ডে জড়িত বাকিদের নাম। নন্দিতার বাড়ি দমদমে। মৈনাকের বাড়ি নাকতলা। পুলিশ সূত্রে খবর, নন্দিতাই মূলত এই চক্রটি চালাতেন। মৈনাক চিত্রগ্রাহক। ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দিয়ে তাঁরা উঠতি মডেল এবং ‘ইচ্ছুক’ ব্যক্তিদের সঙ্গে যোগাযোগ করতেন। পুলিশ এ-ও জানিয়েছে, ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে তাঁদের শ্যুটিং হত। ‘নিওফ্লিক্স’ এবং ‘রেডওয়াইপ টু’-তে দেখানো হত। মূলত বিদেশ থেকে ওই সব ক্লিপ আপলোড করা হত।

এই ঘটনার দিন কয়েক আগেই অর্ধনগ্ন ছবি তুলে নেটমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে জয়শ্রী মিশ্র, প্রতাপ ঘোষকে। বিধাননগর সাইবার অপরাধ দমন শাখা গ্রেফতার করেছে তাঁদের। বিধাননগর থানা সূত্রে খবর, সেন্ট্রাল পার্কে এক তরুণীর অর্ধনগ্ন ছবি তুলেছিলেন প্রতাপ। তরুণীর রূপসজ্জার দায়িত্বে ছিলেন জয়শ্রী। পাশাপাশি এ-ও জানা গিয়েছে, শুধু এঁরাই নন কলকাতার বহু উঠতি মডেল, অভিনেত্রী অর্থের জন্য এই ধরনের কাজ স্বেচ্ছায় করে থাকেন।