‘ধ’র্ষ’ণ’ ‘মা’ম’লা’য়’ গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে বর ‘গ্রে’ফ’তা’র’

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় প্রে’মিকার ‘ধ’র্ষ’ণ’ ‘মা’ম’লা’য় ইসতিয়াক আহম্মেদ নামে এক যুবককে ‘গ্রে’ফ’তা’র’ করেছে ‘পু’লি’শ’। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) রাতে সদর উপজেলার ফতুল্লা থা’নার পশ্চিম দেওভোগ নাগবাড়ি এলাকায় নিজের বাড়িতে তার গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান থেকে ইসতিয়াককে ‘গ্রে’ফ’তা’র’ করা হয়।

পরে শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) দুপুরে ফতুল্লা থা’না ‘পু’লি’শ’ ওই ‘ধ’র্ষ’ণ’ ‘মা’ম’লা’য়’ ‘আ’সা’মি’ ইসতিয়াককে নারায়ণগঞ্জ ‘আ’দা’ল’তে’ প্রেরণ করলে পরে ‘আ’দা’ল’তে’র’ নি’র্দেশে তাকে ‘কা’রা’গা’রে’ পাঠানো হয়।

ইসতিয়াক আহমেদ নাগবাড়ি এলাকার মিজানুর রহমানের ছেলে। মামলার বাদী ও ইসতিয়াক আহমেদের প্রে’মিকা পার্শ্ববর্তী বাবুরাইল তাঁতীপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

‘মা’ম’লা’য়’ ওই তরুণী ‘অ’ভি’যো’গ’ করেন, গত চার বছর আগে ইসতিয়াকের সঙ্গে তার প্রে’মের স’ম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর বিভিন্ন সময় বিয়ের ‘প্র’লো’ভ’ন’ দেখিয়ে ইসতিয়াক তার সাথে ‘শা’রী’রি’ক’ স’ম্পর্ক করতে ‘বা’ধ্য’ করে।

বি’য়ের আ’শ্বাস ও ‘প্র’লো’ভ’নে’র’ এক পর্যায়ে নাগবাড়ি মন্দির সংলগ্ন জিকু মিয়ার বাড়ির তিন তলায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে ‘ধ’র্ষ’ণ’ ক’রতে থাকে। সর্বশেষ ২০১৯ সালের ২৫ ডিসেম্বরও ওই ফ্ল্যাটে নিয়ে তাকে ‘ধ’র্ষ’ণ’ করে ইসতিয়াক।

এরপর থেকে বিয়ের ব্যাপারে কথা বললে ইসতিয়াক নানাভাবে ‘টা’ল’বাহানা শুরু করে এবং বিয়ে না করার ‘পাঁ’য়’তা’রা’ করতে থাকে।

গত ১৪ অক্টোবর সন্ধ্যায়ও তাকে বিয়ে করার কথা বলে বিয়ে করেনি। উ’ল্টো জানিয়ে দেয় সে বাবা মায়ের পছন্দে অন্যত্র বিয়ে করবে এবং তাকে যেন ‘বি’র’ক্ত’ না করে সেজন্য ‘গা’লা’গা’ল’ করেন ইসতিয়াক।

পরে ওই তরুণী জানতে পারেন ইসতিয়াক ‘গো’প’নে’ বিয়ে করছে। বিষয়টি তিনি তার ‘অভি’ভাবকদের জানিয়ে ‘থা’না’য়’ ‘অ’ভি’যো’গ’ করেন।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, তরুণীর ‘অ’ভি’যো’গে’র’ ব্যাপারে প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পেয়ে ইসতিয়াককে তার হলুদ সন্ধ্যার অনুষ্ঠান থেকে ‘গ্রে’ফ’তা’র’ করা হয়েছে। ইসতিয়াক এখন ‘কা’রা’গা’রে’ রয়েছে। তার ব্যাপারে ‘আ’ই’ন’গ’ত’ ব্য’ব’স্থা’ প্র’ক্রি’য়া’ধীন।