৭০০ মিলিয়নের মেসিকে এবার মাত্র ১৫ মিলিয়নে চায় ম্যানসিটি

ক’টা দিন আগের কথা। লিওনেল মেসিকে কিনতে উঠেপড়ে লেগেছিল ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার সিটি। বিশ্বসেরা ফুটবলারের বেতনভাতাসহ সব খরচ মিলিয়ে তৈরি করেছিল ৭৫০ মিলিয়ন ইউরোর বিশাল প্রজেক্ট।

আর্জেন্টাইন মহাতারকার বিনিময়ে প্রয়োজনে নিজেদের সেরা একাদশের ৩ ফুটবলারকে দিয়ে দিতেও রাজি ছিল সিটিজেনরা। তবে সেসব হিসেব নিকেশ শেষ। ক্ষুদে জাদুকরকে তারা এখনো দলে ভেড়াতে উন্মুখ, তবে এতো খরচ আর করতে হবেনা তাদেরকে।

চলতি মৌসুমের শুরুতে মেসি যখন ক্লাব ছাড়তে চেয়েছিলেন, তখন তার রিলিজ ক্লজ ছিল ৭০০ মিলিয়ন ইউরো। এই অর্থ পরিশোধ করা যেকোনো ক্লাবের পক্ষেই কঠিন। বিশেষ করে করোনা পরবর্তী সময়ে আর্থিক অসঙ্গতি সবগুলো ক্লাবেই। এরমধ্যে মেসির এই বিশাল অংকটাকে পুঁজি করেই তাকে আরো একটা মৌসুম আটকে রাখতে পেরেছে বার্সেলোনা।

তবে আগামী মৌসুমে চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে তার। সে হিসেবে বার্সায় এটিই মেসির শেষ মৌসুম। ফলে আগামী মৌসুম থেকে থাকছেনা তার রিলিজ ক্লজের হিসেবও। অর্থাৎ মেসি হয়ে যাচ্ছেন ফ্রি। তাকে কিনতে হলে বার্সাকে কোনো মূল্য পরিশোধ করতে হবেনা। সেই সুযোগটি এবার নিতে চায় ম্যানসিটি।

তবে তার জন্য আগামী মৌসুম পর্যন্তও অপেক্ষা করতে রাজি নয় সিটিজেনরা। আগামী জানুয়ারিতে ২য় দফা ট্রান্সফার সিজন শুরু হলে তখনই ক্ষুদে জাদুকরকে দলে ভেড়াতে চায় সিটি। সেজন্যে প্রয়োজনে বার্সেলোনাকে ১৫ মিলিয়ন ইউরো অফার করবে তারা। ইউরোপিয়ান গণমাধ্যমগুলোতে এখন এমন খবর।

যাই হোক, মেসি আর ক’দিন থাকবেন বার্সায় সেটি কেবল তিনিই জানেন। ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি বাড়াতে এখনো রাজি হননি তিনি। এখনো ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্তেই অটল আছেন তিনি। তবে ক’দিন আগে তার দীর্ঘদিনের বন্ধু ও সতীর্থ লুইস সুয়ারেজ জানিয়েছিলেন, বার্সেলোনার ক্লাব কমিটিতে পরিবর্তন আসলে থেকেও যেতে পারেন মেসি।

ক্লাবের সেই কাঙ্খিত নির্বাচন আগামী মার্চে। তার আগেই ম্যানসিটির এমন প্রস্তাবের ফলাফল কি হবে কে জানে!