জে’নে নিন মাত্র ৩ দিনে মুখের লোম ছি’দ্র বা গ’র্ত দূ’র করার কা’র্যকারী উপায়!

অনেকের সৌ’ন্দর্যের ক্ষে’ত্রেই মুখের লোম ছি’দ্র বা গ’র্ত বা’ধা হয়ে দাঁ’ড়ায়। আর এর কারণেই ব্র’ণ ও ব্ল্যা’কহেডস এর সম’স্যা দেখা দেয়। এই সম’স্যা তৈলা’ক্ত ত্বকের ক্ষে’ত্রে বেশি দেখা দেয়। অতি’রি’ক্ত সিবাম, ময়লা ও ব্যা’কটেরিয়ার স’ঙ্গে মি’শে ‘গুলো ব’ন্ধ করে দেয়।

ব্ল্যা’কহেডস লোমকূ’পগুলোকে অনেক বড় ও দৃ’শ্যমান করে। দী’র্ঘক্ষণ সূর্যের আলোতে থাকলে মুখের লোম’কূপগুলো খু’লে যায় কারণ এতে কোলাজেন ড্যা’মেজড হয় ও লোমকূ’পের দেয়ালগুলোর স্থি’তিস্থা’পকতা ক’মে যায়।

একই ভাবে উন্মু’ক্ত লোমকূপের কারণে ত্বক তার স্থি’তিস্থা’পকতা হা’রায় এবং বয়স বেশি দে’খায়। জে’নেটিক কারণে, স্ট্রেস এবং ত্বকের য’ত্ন না নিলে লোমকূ’প উন্মু’ক্ত হয়। তাই কিছু স’হজ, স্বল্প মু’ল্যের ও প্রাকৃতিক ঘ’রোয়া উপায় অবল”ম্বন করে লোমকূ’পের সম’স্যাটি কমাতে পারেন। চ’লুন তবে জে’নে নেয়া যাক সেই ঘরোয়া উপায়গুলো স’ম্পর্কে-

বরফ: বড় লোমকূপ সং’কুচিত করার সহজ ও কা’র্যকরী উ’পায় হচ্ছে বরফ লা’গানো। কারণ বরফের ত্বক টা’ন টা’ন করার ক্ষ’মতা আছে। মেকআপ করার আগে বড় লোমকূ’পকে ক’মানোর জন্য প্রা’য়ই বরফ ব্যবহার করা হয়। এছা’ড়াও বরফ সং’বহনকে উ’দ্দীপিত করে ও ত্বককে স্বা’স্থ্যকর করে।

পরি’ষ্কার কাপ’ড়ে কয়েকটি বরফের টুকরো নি’য়ে ত্বকের উপর ১৫ থেকে ৩০ সেকেন্ড ধ’রে রা’খু’ন। এইভাবে প্রতিদিন কয়েকবার ক’রুন। যখন ত্বকের উ’ন্নতি ল’ক্ষ্য করবেন তখন বরফ ব্যবহারের মা’ত্রা ক’মাতে পা’রেন। বিক’ল্প উ’পায় হিসেবে আপনি বরফ ঠাণ্ডা পানি দিয়ে প্রতিদিন একবার মুখ ধু’তে পা’রেন। আরো ভালো ফল পাওয়ার জন্য বরফের টু’করার স’ঙ্গে শশার রস, আপেলের রস, গ্রিন টি বা গোলাপ জল ব্যবহার ক’রতে পা’রেন।

মুলতানি মাটি: মুলতানি মাটিকে “ফুলারস আ’র্থ” ও বলা হয় যা উন্মু’ক্ত লোমকূ’পকের জন্য উপকারি প্রাকৃতিক প্র’তিকার। মুলতানি মাটি ত্বকের অতিরি’ক্ত তেল শো’ষণ করে এবং ত্বকের এ’ক্স’ফলিয়েট করে। এছা’ড়াও ত্বকের ক্ষ’ত ও দাগ কমাতে সাহায্য করে এবং সূর্যের ক্ষ’তিকর প্র’ভাবের ক্ষে’ত্রে উপকারি ভূমিকা রা’খে।

দুই টেবিল চামচ মুলতানি মাটির স’ঙ্গে পর্যাপ্ত পরিমাণ গোলাপ জল মি’শিয়ে পেস্ট তৈরি ক’রুন। পেস্টটি মুখে লা’গিয়ে ১৬ থেকে ২০ মিনিট রা’খু’ন। শু’কিয়ে গেলে ঘ’ষে উ’ঠিয়ে ফে’লুন এবং ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধু’য়ে ফে’লুন। মাটির এই মা’স্কটি সপ্তাহে এক বা দুই বার ব্যবহার ক’রুন।