ধোনির সিদ্ধা’ন্তে চ’মকে যায় প্রতিপক্ষ, বোকা বনে হার মানতেই বাধ্য হন

ক্রিকেট মাঠে অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনির সি’দ্ধান্তে চ’মকে যায় প্রতিপক্ষ। বোকা বনে হার মানতেই বাধ্য হন। এবার ধোনির সি’দ্ধান্তে চ’মকে গেছেন এই ক্রিকেটারের সতীর্থই। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে ত্রয়োদশ আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে ধোনি অবা’ক করেছেন সতীর্থ স্যাম কারেনকে।

প্রথমবারের মতো চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে মাঠে নেমেছেন ইংলিশ বাঁহাতি অলরাউন্ডার কারেন। থালাইবাদের হয়ে মাঠে নামার আগে দলের সঙ্গে পর্যাপ্ত অনুশীলন কিংবা পরিচিত হতেও পারেননি। তবে মাঠের পারফরম্যান্সে তার কোনো প্র’ভাব পড়েনি। বল হাতে আলো ছড়ানোর পর ব্যাট হাতে ঝড়ো ইনিংস খেলে দলকে জি’তিয়ে বাগিয়ে নিয়েছেন ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কারও।

আর প্রথম ম্যাচেই ইংলিশ এই অলরাউন্ডারকে চ’মকে দিয়েছেন ‘সুপার কুল’ অধিনায়ক ধোনি। ম্যাচ জিততে তখন ৩ ওভারে দরকার ২৯ রান। ড্রেসিংরুমে ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফিনিশার ধোনি থেকে শুরু করে কেদার যাদবের মতো বিধ্বং’সী ব্যাটসম্যান। এমন সময় আউট হয়ে গেলেন পাঁচে ব্যাটিংয়ে নামা রবীন্দ্র জাদেজা।

খুব স্বাভাবিকভাবে ধোনি কিংবা কেদারকে আশা করছিলো চেন্নাই সমর্থকরা। কিন্তু সবাইকে অ’বাক করে অধিনায়ক ধোনি সিদ্ধা’ন্ত নিলেন ছয়ে ব্যাট হাতে নামবেন কারেন। ব্যাট হাতে অধিনায়কের সিদ্ধা’ন্তকে যথার্থ প্রমাণ করেছেন এই ইংলিশ ক্রিকেটার। খেলছেন ১৮ রানের ছোট ইনিংস। কিন্তু মাত্র ৬ বলে, ৩০০ স্ট্রাইক রেটে। ফলে চেন্নাইয়ের জন্য ম্যাচটা অনেক সহজ হয়ে যায়।

কারেন যখন আউট হয়ে ফেরেন তখন আর ১০ বলে ১০ রান লাগে চেন্নাই শিবিরের। এরপরে অধিনায়ক ধোনি ব্যাট হাতে নামেন। তবে ব্যাট হাতে রান করার প্রয়োজন পড়েনি ধোনির, তার আগেই চার বল হাতে রেখে জয়ের দেখা পায় চেন্নাই।