বিমানবন্দরের মধ্যেই প্রকাশ্যে স্বল্প পোশাকে তু-মুল নাচ তিন সুন্দরী এয়ার হোস্টেজের, মুহূর্তে ভাইরাল হলো ভিডিও, রইলো (ভিডিও সহ)

কাজের ব্যস্ততায় আমরা অনেক সময়ই মানসিক বিপর্জয়ে ভুগি।অতিরিক্ত চাপের ফলে আমাদের শরীরের ভারসাম্য নষ্ট হয়।ফলস্বরূপ দেখা যায় বিভিন্ন শারীরিক অসুস্থতা।কিন্তু অনেক কর্মক্ষেত্র এমন আছে যা থেকে সহজে ছুটি মেলা সম্ভব না।বা হয়ত নিজস্ব অর্থনৈতিক পরিস্থিতির জন্য ছুটি নিতে পারেন না মানুষ।

তাই সব রকম পরিস্থিতিতে মানিয়ে নেওয়ার জন নজিরবিহীন উদাহরন দিল এক দল এয়ার হোস্টেস। আমরা জানি, এয়ার হোস্টেস এর কাজ খুবই ঝুঁকিপূর্ণ।এর জন্য প্রয়োজন প্রচুর পরিমাণে ইচ্ছাশক্তি আর আত্মবিশ্বাস।

কাজের মধ্যে প্রধানত হচ্ছে বিমানে বহনকারী যাত্রীদের নিরাপত্তা ও স্বাচ্ছন্দ্যে ভ্রমণের জন্য প্রয়োজনীয় সেবা দেওয়া ও সেবা সুনিশ্চিত করা।এ ছাড়া বিমানের ওঠা-নামা সংক্রান্ত সব তথ্য পাইলটের হয়ে যাত্রীদের জানাতে হবে এয়ার হোস্টেস কেই।

এখানেই শেষ নয় পরিচ্ছন্নতা, খাবার-দাবারের সরঞ্জাম পৌঁছানো, জরুরি ইকুইপমেন্ট, ফার্স্ট এইড ঠিক রাখা,বিমানে ওঠার পর যাত্রীদের টিকিট মিলিয়ে দেখা,

যাত্রীদের সিট দেখিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি তাদের আসন নিশ্চিত করাসহ বিমান আকাশে ওড়ার আগে যাত্রীদের সিটবেল্ট লাগাতে বলা সব কিছুই একজন এয়ার হোস্টেসের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। সম্পূর্ণ এয়ার লাইন্সের সম্মান জড়িয়ে থাকে একজন এয়ার হোস্টেসের সাথে।

আর কাজেরও নেই কোনো নির্দিষ্ট সময়সীমা।এতটা চাপের মধ্যে থাকা সত্বেও সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এক ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে কয়েক জন এয়ার হোস্টেস বিমান বন্দরের মধ্যেই জমিয়ে নাচ করছেন।তার মধ্যে রয়েছে তিন সুন্দরী তরুণী ও।

আর আশেপাশের অনেকেই তাদের এই নাচ দেখছেন।অনেকেই আবার এই অসাধারণ মুহূর্তটিকে ক্যামেরা বন্দী করে নিতে ব্যস্ত।নেট দুনিয়ায় তুমুল ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি। বোঝাই যাচ্ছে,ঠিক আপনিও যদি কাজের ফাঁকে মুহূর্ত গুলিকে এমনভাবেই উদযাপন করে নিতে পারেন।

তাহলে আপনার কাজ ও হয়ে উঠবে আনন্দদায়ক এবং সুখকর।সাথে সাথে সব মানসিক চিন্তাও দূরীভূত হবে।কোন বিমানবন্দরের ভিডিও এখনও জানা না গেলেও কমেন্ট বক্স এ অনেকেই তাদের নাচের প্রশংসা করেছেন।