চিরঞ্জিবী অমায়িক, দেখা হলেই উঠে দাঁড়ান, সলমন পাক্কা পেশাদার, কিন্তু ভাল: যিশু সেনগুপ্ত

এ বার নতুন বছরের সেলিব্রেশনে থাকা হবে না কলকাতায়। এক দিকে চিরঞ্জিবী, অন্য দিকে সলমন খানের সঙ্গে অভিনয় করবেন যিশু।টলিপাড়ার জনপ্রিয় অভিনেতা যিশু সেনগুপ্ত এখন মুম্বই থেকে দক্ষিণী ছবির পরিচিত মুখ। করোনা, লকডাউন কিছুই থামাতে পারেনি তাঁকে।

কখনও মুম্বই, কখনও হায়দরাবাদ, থেকে থেকেই পাড়ি দিচ্ছেন তিনি। হায়দরাবাদ যাওয়ার পথে আনন্দবাজার ডিজিটালকে বললেন, ‘‘চিরঞ্জিবী স্যারের সঙ্গে কাজ। ‘আচার্য’ ছবিতে। আমি অভিভূত। এ রকম মেগাস্টার, অথচ কী অমায়িক। চাইলেও সবাই ওঁর মতো হতে পারবে না।’’

তেলুগু ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতে গিয়ে যিশু আবিষ্কার করেছেন নতুন তথ্য। বললেন, ‘‘শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়কে ওরা ভাবে তেলুগু সাহিত্যের মানুষ। ওঁর সমস্ত লেখা তেলুগুতে অনুবাদ করা হয়েছে।

এমন এক সময় থেকে যখন থেকে উনি লিখতে শুরু করেছেন। বাংলা সাহিত্য নিয়ে তেলুগুতে যা কাজ হয়েছে আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতেও হয়নি। আমি তো হতবাক!’’ কেমন লাগছে চিরঞ্জিবীর সঙ্গে কাজ করে?

যিশু বললেন, ‘‘এত বড় স্টার! দেখলে একদম বোঝা যায় না। আমি ফ্লোরে গেলাম, উনি হয়তো বসেছিলেন, আমাকে দেখেই উঠে দাঁড়ালেন। শুধু তাই নয়। যত ক্ষণ না আমার চেয়ার এল উনি দাঁড়িয়ে রইলেন।’’

শুধু এটুকুই না। যিশু বললেন, প্রথম দফায় যখন গরমকালে শ্যুট হচ্ছিল তখনও এক কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন ‘স্যার’। যিশু বললেন, ‘‘আমি ফাইট মাস্টারের কাছে সিন বুঝছি। তাই আমার স্পটবয়কে বলেছি ছাতা লাগবে না। চিরঞ্জিবী স্যার সেটা দেখে ঠিক আমার পাশে এসে দাঁড়ালেন। যাতে ওর ছাতার ছায়ায় আমার গায়ে রোদ না লাগে।’’

চিরঞ্জিবীর ১৯ একর জমির প্রপার্টির উপর ১৬ একর জুড়ে তেলুগু ছবির সেট তৈরি হয়েছে। সেট তৈরিতেই খরচ হয়েছে ৫০ কোটি টাকা। সম্পূর্ণ একটা গ্রাম তৈরি হয়েছে এই ছবির জন্য। প্রথম দফায় শ্যুট শুরু হয়েছিল সকলের কোভিড টেস্ট করে।

শুধু চিরঞ্জিবী নন, ১৫ নভেম্বর থেকে পাশাপাশি সলমনের সঙ্গে কাজ শুরু করেছেন যিশু। তিনি বললেন, ‘‘ফ্লোরে খুব চুপচাপ থাকেন সলমন। পাক্কা পেশাদার। চিরঞ্জিবী স্যারের মতো কাছে টানেন না। কিন্তু মানুষ হিসেবে খুব ভাল।’’

সলমন খানের ছবি ‘অন্তিম’-এ কাজ করছেন যিশু। ‘অন্তিম’-এর পরিচালক মহেশ মঞ্জরেকর। এই ছবি মরাঠি ফিল্ম ‘মুলশি প‍্যাটার্ন’-এর রিমেক। এই ফিল্মে সলমন এক জন শিখ পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় অভিনয় করছেন। ‘অন্তিম’-এ গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন সলমনের বোন অর্পিতা খানের স্বামী অভিনেতা আয়ুষ শর্মা। যিশু থাকছেন খলনায়কের ভূমিকায়।

গত এক বছরে হিন্দিতে ‘মণিকর্ণিকা’, ‘সড়ক টু’, ‘দেবীদাস ঠাকুর’, ‘শকুন্তলা দেবী’-তে কাজ করেছেন যিশু। সুজয় ঘোষের ওয়েব সিরিজ় ‘টাইপরাইটার’-এও অভিনয় করেছেন। ‘স্কাইফায়ার’ নামে একটি সিরিজেও কাজ করেছেন। তাঁর অভিনীত চরিত্রগুলি যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।

‘মণিকর্ণিকা’য় তিনি কঙ্গনা রানাউতের স্বামী, ‘সড়ক টু’-তে আলিয়া ভট্টর বাবা এবং ‘শকুন্তলা দেবী’-তে বিদ্যা বালনের স্বামীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন যিশু। দক্ষিণে এনটি রাম রাওয়ের বায়োপিক ‘এনটিআর’-এ দেখা গিয়েছিল তাঁকে। ‘অশ্বত্থামা’ ছবিটি নতুন পরিচালক রামানা তেজার। ফেব্রুয়ারিতে ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা।