কি’ডনি ও লি’ভার পরিষ্কার রাখে যে শাক!

মানুষের অ’ঙ্গপ্রত্য’ঙ্গের মধ্যে অত্যন্ত গু’রুত্বপূর্ণ হচ্ছে কি’ডনি ও লি’ভার। এই দুটি জিনিসকে ভাল রাখার জন্য আম’রা বিভিন্ন প’দ্ধতি অবলম্বন করে থাকি।

তবে বথুয়া বা বেথো শাক কি’ডনি ও লি’ভার প’রিষ্কার রাখে বলে ভারতীয় গণমাধ্যম জি নিউজে’র খবরে প্রকা’শিত হয়েছে। এই শাকের রয়েছে প্রচুর গুণ। শ’রীরের বিভিন্ন অ’ঙ্গের উপকারে আসে বেথো শাক।

গ্রাম বাংলার মাঠে-ঘাটে, পুকুর পাড়ে, পথের ধারের জমিতে অযত্নেই গজিয়ে ওঠে বথুয়া বা বেথো শাক। এই শাক জমিতে আ’লাদাভাবে চাষ করা হয় না।

তবে একটা সময় শুধু শীতকালেই পাওয়া যেত এই শাক। তবে আজকাল মোটামুটি সারাবছরই পাওয়া যায় বেথো শাক। বেথো শাকে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, সি, পটাশিয়াম,

ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন, অ্যামাইনো অ্যাসিড, ফসফরাস, জিংকের মতো গু’রুত্বপূর্ণ উপাদান। এগুলো মানব স্বা’স্থ্যের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। আসুন জে’নে নেই বথুয়া বা বেথো শাকের আ’শ্চর্য কয়েকটি ওষধিগুণ-

* গরম পানি পড়ে ত্বকের কোনও অংশ পু’ড়ে গেলে বা ফো’সকা প’ড়লে ওই অংশে বেথো শাক বেটে আ’লতো করে লা’গিয়ে দিন। দে’খবেন ত্বকের জ্বা’লা ভাব খুব দ্রু’ত কমে যাবে।

* মুখে ঘা হলে বেথো শাক চিবিয়ে খেতে পারলে বা হালকা করে রান্না করে খেলে ঘা খুব তাড়াতাড়ি সেরে যাবে। * প্রস্রাবের সময় যাদের জ্বা’লা করে, তারা বেথো শাক বেটে তার স’ঙ্গে ২ চামচ জিরার গুঁড়া, ২ চামচ পাতিলেবুর রস মিশিয়ে শরবত বানিয়ে খেয়ে দেখু’ন।

দিনে অন্ত’ত দু’বার এই শরবত খেতে পারলে এই সম’স্যা কে’টে যাবে। * কি’ডনিতে পাথর হলে প্রতিদিন ১ কাপ বেথো শাক রস খেতে পারলে উপকার পাওয়া যায়।

* ত্বকে শ্বেতির মতো স’মস্যা নিরাময়েও বেথো শাক অত্য’ন্ত কা’র্যকরী! * পিত্ত, লি’ভারের সম’স্যা বা মলা’শয়ের স’মস্যা দূ’র ক’রতে বেথো শাক খুবই উপকারী।