বিয়ের কয়েক ঘণ্টা আগে আমচকা পঙ্গু হয়ে গেল কনে, বিয়ে করে ভালবাসার নজির গড়ল পাত্র। বিস্তারিত ভিতরে

বিয়ের দিন জানা গেল পাত্রী হঠাৎ এক দু’র্ঘ’ট’নায় প”ঙ্গু হয়ে গেছেন। এমন খবরের পর অনেকেই ভে’বেছিলেন তাকে গ্রহণ করবেন না স্বামী। তবে এসব ধারণাকে বু’ড়ো আ’ঙ্গুল দে’খিয়ে ভারতের উত্তর প্রদেশের প্রতাপগড়ের এক যুব’ক বিয়ের ৮ ঘণ্টা আগে দু’র্ঘ’ট’নায় প”ঙ্গু হয়ে যাওয়া কন্যাকে স্ট্রে’চারে শুয়ে থাকা অবস্থাতে বিয়ে করেছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম এবিপি আনন্দ জানায়, প্রতাপগড়ের কুন্ডা এলাকার বাসিন্দা আরতি মৌর্যের বিয়ে ঠিক হয়েছিল পাশের গ্রামের অবধেশের সঙ্গে। ৮ তারিখ তাদের বিয়ের কথা ছিল। সেদিন দুপুর একটার দিকে একটি শিশুকে বাঁ’চানোর চেষ্টা করে ছাদ থেকে পড়ে যান আ’রতি।

ভে’ঙে টু’ক’রো টুক’রো হয়ে যায় তার মে’রুদ’ণ্ড। এছাড়া শরীরের অন্যান্য অ’ঙ্গপ্র’ত’ঙ্গও ভ’য়া’ব’হ চো’ট পায়। সানাইয়ের শব্দ মু’হূ’র্তেই কা’ন্নায় রূপ নেয়। আরতিকে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে।

চিকিৎসকরা জানান, আরতি প”ঙ্গু হয়ে গিয়েছেন, বেশ কয়েক মাস বি’ছানা থেকে ন’ড়তে পারবেন না। এমনকি চিকিৎসার পরেও তার পু’রোপু’রি সুস্থ হয়ে ওঠার সম্ভাবনা কম।

তবে ঘট’না শুনে পাত্র অবধেশ চলে যান হাসপাতালে, হবু স্ত্রীর প’রিচ’র্যায় মনোনিবেশ করেন।বিয়ের কয়েক ঘণ্টা আগে আমচকা পঙ্গু হয়ে গেল কনে, বিয়ে করে ভালবাসার নজির গড়ল পাত্র অবধেশ জানান, তিনি আরতিকেই বিয়ে করবেন।

বিয়ের যে ল”গ্ন ঠিক ছিল, সে সময়ে হবে অনুষ্ঠান। যদি হাসপাতালে গিয়ে অক্সি’জেনের সাহায্যে শ্বা’সপ্রশ্বা’স নেওয়া আরতিকে বিয়ে করতে হয়, তাহলেও পি’ছপা হবেন না তিনি। পরিস্থিতি দেখে চিকিৎসকরা ঘণ্টাদুয়েক পর অ্যাম্বুলেন্সে আরতিকে বাড়ি পাঠান।

আরতি তখন স্ট্রে’চারে শুয়ে, অ’ক্সি’জেন, স্যা’লাইন চলছে। সেই অবস্থাতেই তাকে সিঁদুর পরান অবধেশ। হয় যাবতীয় অনুষ্ঠান। শুধু শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার বদলে আরতিকে আবার নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। পরের দিন তার অ’পা’রেশন হওয়ার কথা ছিল, ফর্মে সই করেন স্বয়ং অবধেশ।