বদিকে বাবা দাবি করে বেকায়দায় যুবক

সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদিকে নিজের বাবা দাবি করে টেকনাফের এক যুবকের দায়ের করা মা’মলায় জারি করা সমনের চিঠি আ’দালতে ফেরত না আসায় শুনানি অনুষ্ঠিত হয়নি। এমনকি মা’মলার মূল আ’সামি বদিও আ’দালতে উপস্থিত ছিলেন না। আজ বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে এ তথ্য জানান মা’মলার বাদীপক্ষের আইনজীবী কফিল উদ্দিন চৌধুরী।

গত ১৩ ডিসেম্বর টেকনাফ পৌরসভা’র কায়ুকখালী পাড়ার ২৭ বছর বয়স যুবক মোহাম্ম’দ ইসহাক বদিকে নিজের বাবা দাবি করে টেকনাফের সহকারী জজ আ’দালতে মা’মলা দায়ের করেন। মা’মলায় বদি ছাড়াও মূল বিবাদী করা হয়েছে বদির চাচা টেকনাফের পৌর মেয়র হাজী মোহাম্ম’দ ইস’লামকে।

ওই দিন মা’মলা’টি আমলে নিয়ে মূল বিবাদী আব্দুর রহমান বদিসহ বিবাদীদের ১৪ জানুয়ারি আ’দালতে উপস্থিত হয়ে জবানব’ন্দি দেওয়ার আদেশ দিয়েছিলেন বিচারক।

৩০ বছর আগে টেকনাফ পৌরসভা’র ইস’লামাবাদ ধুমপাড়ার বাসিন্দা আবুল বশরের মে’য়ে সুফিয়া খাতুনকে বদি বিয়ে করেন বলে মা’মলার বাদী দাবি করেন। তার দাবি, সেই সূত্রেই বদির প্রথম ছে’লে তিনি।

মা’মলার বাদীপক্ষের আইনজীবী কফিল উদ্দিন চৌধুরী জানান, আ’সামিদের বি’রুদ্ধে আ’দালতের জারি করা সমন এখনো ফেরত আসেনি। তাই মা’মলার নির্ধারিত দিনে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়নি। যেহেতু সমন ফেরত না আসায় আ’সামি সময় পেয়েছেন।

জারি করা সমন ফেরত আসার পর আ’দালতের পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানা যাবে বলে জানান বাদীপক্ষের এ আইনজীবী। অ’পরদিকে মা’মলার বাদী মোহাম্ম’দ ইসহাক জানান, মা’মলা দায়েরের পর তিনি নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন।