কারা ‘মে’রেছে ভিডিওতে বলে গেলেন ‘নি’হত ‘ছা’ত্রলীগকর্মী রোহিত

চট্টগ্রাম নগরীর দেওয়ানবাজার এলাকায় ‘ছু’রিকাঘাতে ‘আ’হত হয়ে ‘হা’সপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ‘ছা’ত্রলীগের এক কর্মী ‘মা’রা গেছেন।

‘মা’দকবিরোধী পোস্টার ‘ছেঁ’ড়াকে কেন্দ্র করে ‘বি’রোধের জেরে তাকে ‘খু’ন করা হয়েছে বলে ‘পু’লিশের কাছে ‘অ’ভিযোগ করেছে পরিবার। এর আগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক ভিডিওতে রোহিত ‘ছু’রিকাঘাতকারী দুর্বৃত্তদের নাম বলে যান।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) সকালে চট্টগ্রাম ‘মে’ডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার ‘মৃ’ত্যু হয়। ‘মৃ’ত আশিকুর রহমান রোহিত (২০) ওমরগনি এমইএস কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী।

গত ৮ জানুয়ারি বিকেলে নগরীর দেওয়ানবাজার ভরাপুকুর পাড় সংলগ্ন কেডিএস গলি এলাকায় ‘ছু’রিকাঘাতের ‘শি’কার হন রোহিত।

‘নি’হতের পরিবার ও স্থানীয় ‘ছা’ত্রলীগ কর্মীদের ‘অ’ভিযোগ, ১৭ নম্বর পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ডের ‘আ’ওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী শহীদুল আলমের অনুসারী মহিউদ্দিন, বাবু এবং সাবু তাকে অতর্কিত ‘ছু’রিকাঘাত করে।

এর ‘দু’দিন আগে এলাকায় ‘মা’দকবিরোধী পোস্টার লাগাতে গিয়ে ‘অ’ভিযুক্তদের সঙ্গে রোহিতের বাকবিতণ্ডা হয়েছিল। এ ‘ঘ’টনায় ‘অ’ভিযুক্ত তিনজনকে ‘আ’সামি করে একটি ‘মা’মলাও দায়ের করেন রোহিতের ভাই জাহিদুর রহমান। ‘ঘ’টনার পর থেকে তিন ‘আ’সামি ‘প’লাতক রয়েছে।

বাকলিয়া ‘থা’নার ‘ও’সি মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন বলেন, বাকলিয়ায় চান মিয়া মুন্সী লেইনের মা মনি ক্লাবের কার্যক্রম নিয়ে দু’টি পক্ষের সৃষ্টি হয়। ক্লাবের পক্ষ থেকে রোহিত ও তার বন্ধুদের লাগানো পোস্টার অন্যরা ছিঁড়ে ফেলে। এটা নিয়ে উভয়পক্ষে ঝগড়া হয়। ‘ঘ’টনার দিন রোহিতকে পেয়ে কয়েকজন দুর্বৃত্ত ধাওয়া করে ‘ছু’রিকাঘাত করে।

‘ঘ’টনার পরদিন রোহিতের বড়ভাই জাহিদুর রহমান বাদী হয়ে সাহাবু (২৬), মো বাবু (২১) ও মো মহিউদ্দিনকে (৩৫) ‘আ’সামি করে একটি ‘হ’ত্যাচেষ্টা ‘মা’মলা করেন বাকলিয়া ‘থা’নায়। ‘মা’মলার এজাহারে ‘মা’দকবিরোধী পোস্টার ছেঁড়া নিয়ে দ্বন্দ্বে তাকে ‘ছু’রিকাঘাতের ‘অ’ভিযোগ করা হয়।

‘আ’সামিদের ‘গ্রে’প্তারের ‘চে’ষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন ‘ও’সি নেজাম। বাকলিয়ার স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রোহিত সক্রিয় ছাত্রলীগ কর্মী। গত ৮ জানুয়ারি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচারণা শুরুর দিন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর প্রচারণায় অংশ নেয়ার সময় ‘ছু’রিকাঘাতে ‘আ’হত ‘হ’ন তিনি।

‘পু’লিশ বলছে, বাকলিয়া ‘ডি’সি রোড সংলগ্ন চান মিয়া মুন্সী লেইনের মা মনি ক্লাবের কার্যক্রম নিয়ে রোহিতদের সঙ্গে স্থানীয় একটি গ্রুপের বিরোধ ছিল। মাদকবিরোধী পোস্টার লাগানোর ‘ঘ’টনা নিয়ে এই ‘বি’রোধ আরও ‘তী’ব্র হয়ে ওঠে। এর জের ধরেই ‘রো’হিতকে ‘ছু’রিকাঘাত করা হয়।

এদিকে রোহিতের ‘মৃ’ত্যুর ‘খ’বর ছড়িয়ে পড়লে ওই এলাকার ‘ছা’ত্রলীগ ‘নে’তাকর্মীরা নগরীর গুলজার মোড় ‘অ’বরোধ করে ‘বি’ক্ষোভ করেন। ‘ঘ’টনার সাত দিনেও ‘পু’লিশ ‘আ’সামিদের ‘গ্রে’প্তার করতে না পারায় ‘ক্ষো’ভ প্রকাশ করেন তারা। একই সঙ্গে অবিলম্বে ‘খু’নীদের ‘গ্রে’প্তারের দাবি জানান। পরে সড়ক থেকে বিক্ষুব্ধ ‘ছা’ত্রলীগ নেতাকর্মীদের সরিয়ে দেয় ‘পু’লিশ।