উজ্জ্বল মসৃণ ত্বক পান মাত্র একমাসে পর্ব ২

মুখে নানারকম কালো দাগ? বা স্কিন অনেক বেশি বুড়িয়ে যাচ্ছে? এসব সমস্যার জন্য দামি প্রসাধনী ব্যবহার করার দরকার নেই। কারণ হাতের কাছেই আছে এমন কিছু উপাদান, যা ত্বকের এজিং প্রসেসকে রোধ করে। ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখে। শুধু তাই নয় স্কিনের যেকোনো দাগ দূর করে স্কিনকে করে তোলে দু টোন পর্যন্ত বেশি ফর্সা আর উজ্জ্বল। তাহলে দেখে নেওয়া যাক এমন কিছু উপাদান যা সত্যি করে তুলবে ভেতর থেকে উজ্জ্বল।

১.তুলসি তুলসি তুলসি একটি উপকারি আয়ুর্বেদিক জড়িবুটি। যা অ্যান্টিসেপটিক হিসাবেও কাজ করে। তার ফলে ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার ক্ষেত্রে বেশ উপকারি। এবং ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করে।

ত্বককে ফ্রেশ রাখে। এর জন্য প্রতিদিন তুলসী চা খেতে পারেন। গরম জলে তুলসী পাতা ফুটিয়ে সেই জলটা খেলেও বেশ উপকার পাবেন। এত শুধু ত্বককেই সুন্দর করবে না, আপনার স্বাস্থ্যেরও খেয়াল রাখবে। তাই সুন্দর ত্বককে সুন্দর রাখতে আপনার বাড়ির ছোট্ট তুলসী চারাটি যথেষ্ট।

২.অশ্বগন্ধা তুলসির মত অশ্বগন্ধাও আরেকটি উপকারি উপাদান। যেটি আমাদের শরীরকে ভালো রাখতে বেশ উপকারি। এছাড়াও ত্বকের জন্যও এটি উপকার। এতে ত্বকের জন্য অনেক উপকারি উপাদান আছে।

যা ত্বককে ভালো রাখতে, ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করে। ত্বককে উজ্জ্বল রাখতেও সাহায্য করে। এছাড়াও অশ্বগন্ধা শ্যাম্পু চুলের জন্যও খুব উপকার। এটি খুশকি নিয়ন্ত্রণ করতে বেশ উপকারি। এবং অনেক সময় চুলের স্বাভাবিক রঙ নষ্ট হয়ে যায়। চুল লালচে হয়ে যায়। সেক্ষেত্রেও এটি খুব উপকার।

৩.মধু মধু হল বহুদিন ধরে প্রচলিত একটি উপকারি উপাদান। এবং ত্বককে সুন্দর রাখতে মধুর উপকারিতা আমরা সবাই জানি। ত্বককে সুন্দর রাখতে জাস্ট একটু মধু নিয়ে জল মিশিয়ে হালকা হাতে মুখে ম্যসাজ করুন। দেখবেন ত্বক ধীরে ধীরে উজ্জ্বল হচ্ছে।

৪.হরিতকি হরিতকির নানা গুণ আছে। এতে আছে ট্যানিন, অ্যামাইনো অ্যাসিড, ফ্রুকটজ এছাড়াও বিভিন্ন উপাদান। ত্বককে পরিষ্কার রাখে। ত্বককে উজ্জ্বল করতেও বেশ সাহায্য করে। হরিতকী ফুটিয়ে জল খেলে সেটি ত্বককে পরিষ্কার রাখে। ত্বকের অ্যালার্জি রোধ করে।

ও ত্বককে উজ্জ্বল করতেও সাহায্য করে। শুধু ত্বক নয় চুলের জন্যও এটি উপকার। হরিতকির গুড়ো নারকেল তেলে মিশিয়ে একটু ফুটিয়ে নিয়ে সেই তেল মাখলে চুল ভালো থাকে।

৫.আমলকী আমলকী ফল হল আয়ুর্বেদিকের আরেকটি উপকারি জড়িবুটি। যেটি আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে বহুল প্রচলিত। ত্বকের কালো দাগ দূর করতে উপকারি। এছাড়াও ত্বককে উজ্জ্বল করতে প্রতিদিন যদি আমলকীর রসে সঙ্গে মধু মিশিয়ে খাওয়া হয় তাহলে উপকার পাওয়া যায়। পুরে গেলে সেই দাগ দূর করতেও সক্ষম আমলকী। ত্বকের সঙ্গে চুলের জন্য খুব উপকার আমলকী। চুলের গোঁড়া মজবুত করতে, খুশকির সমস্যায় ও চুল কালো করতে বেশ উপকারি আমলকী।

এগুলো ব্যবহার করে দেখু`ন। কারণ এই সবকটি উপাদানই ভেতর থেকে কাজ করে সাময়িক নয়। তাই তখন কিন্তু আর ভুরি ভুরি প্রসাধনী ব্যবহার করার দরকার পরবে না। স্কিন এমনি উজ্জ্বল দেখাবে।